fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

চারিদিকে করোনা তান্ডব চালালেও গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে কেউ আক্রান্ত নন, দাবি প্রধানের

দীপঙ্কর দে, ইসলামপুর: করোনা সংক্রমনের হাহাকারের মধ্যে গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে একজনও আক্রান্ত নন দাবি প্রধানের। তবুও বাসিন্দাদের সুস্থ রাখতে স্বাস্থ্য প্রশাসনের মদতে প্রধান মহম্মদ রইসুদ্দিন নিজের গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় বাসিন্দাদের কোভিড পরীক্ষার উদ্যোগ নিয়েছেন। দুই শতাধিক পরিযায়ী শ্রমিক ভিনরাজ্য থেকে গ্রামে ফিরলেও তাঁদের কোভিড টেস্ট করিয়ে গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রেখে তারপর বাড়ি ফেরান হয় বলে প্রধান জানিয়েছেন।

প্রায় ১৭ হাজার বাসিন্দার এই গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে একজনও আক্রান্ত না হওয়ায় এলাকায় স্বস্তির বাতাবরণ বইছে। আর তাই বাসিন্দাদের করোনা মুক্ত রাখতে পঞ্চায়েত প্রধানের উদ্যোগে গোবিন্দপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লালারসের নমুনা সংগ্রহের কর্মসূচী নেওয়া হয়েছে। এদিন গোবিন্দপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে ৫০ জনের লালারস সংগ্ৰহ করা হয়েছে।

পাশাপাশি রাজুবস্তি এলাকায়ও লালারসের নমুনা সংগ্ৰহ করা হবে বলে পঞ্চায়েত প্রধান জানিয়েছেন। স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সম্পাদিকা মমতা বেগম বলেন, লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য দেওয়াকে কেন্দ্র করে মানুষের মধ্যে একটা ভয় ভীতি ছিল। তবে আমরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোঝানোর পর মানুষ স্বেচ্ছায় লালারস পরীক্ষার জন্য এগিয়ে আসছে। অন্যদিকে গোবিন্দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মহম্মদ রইসুদ্দিন বলেন, প্রায় আড়াইশো পরিযায়ী শ্রমিক এই পঞ্চায়েতের ভিনরাজ্য থেকে এসেছিল কিন্তু তাঁদের পরীক্ষা করিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রেখে তারপর বাড়ি পাঠিয়েছি। এই গ্রাম পঞ্চায়েতের একজনও আক্রান্ত হননি। বাসিন্দাদের সুস্থতা নিশ্চিত করতেই কোভিড টেস্টের উদ্যোগ নিয়েছি।

Related Articles

Back to top button
Close