fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অতিরিক্ত বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরবঙ্গ, প্লাবিত মহানন্দা

মিল্টন পাল, মালদা: উত্তরবঙ্গে অতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে ফুঁসছে জেলার নদী মহানন্দা, টাঙ্গন ও ফুলহার নদী। মহানন্দা জলে ইতিমধ্যেই প্লাবিত হয়েছে মালদা চাঁচল ১ নম্বর ব্লকের মতিহারপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গালিমপুর এলাকা। কয়েক হাজার মানুষ জলবন্দি। কোনও রকমে তারা উঁচু জায়গায় আশ্রয় নিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে এলাকার উঁচু জায়গার স্কুল গুলিতে ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে। যদিও এ নিয়ে মানুষের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে।

পাশাপাশি পুরাতন মালদা পৌরসভার ৮ ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ড এবং ইংরেজবাজার পৌরসভার ৮, ৯,১৩, ২১ নম্বর ওয়ার্ড ও বৃষ্টির জলে প্লাবিত ৩ , ২০ নম্বর ওয়ার্ড। এলাকাবাসী রীতিমতো ক্ষুব্ধ। তিন নাম্বার ওয়ার্ডের বাসিন্দা এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পুরসভার বিরুদ্ধে। তিন নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা ছোটন চক্রবর্তী বলেন, ছয় মাস ধরে এলাকায় জলমগ্ন হয়ে রয়েছে বারবার পুরসভা ও জেলা প্রশাসনের কাছে জানানো হলেও কোনো লাভ হয়নি। মানুষ সাপের সঙ্গে বসবাস করছে। এলাকায় বিভিন্ন চর্মরোগ দেখা দিচ্ছে মানুষের মধ্যে। এদিন উত্তরমালা সংসদের নেতৃত্বে শহরের ৩ নম্বর ওয়ার্ড পরিদর্শনে বিজেপির প্রতিনিধিদল। তাদের সামনে ও মানুষ একরাশ ক্ষোভ উগরে দেন।

পুরসভার ভূমিকা নিয়ে সরব হয়েছেন খগেন মুর্মুর তিনি বলেন পুরসভার উদাসীনতার কারণে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে পুরাতন মালদার বেশ কয়েকটি ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন পুরাতন মালদা পৌরসভার চেয়ারম্যান কার্তিক ঘোষ। তিনি বলেন বন্যা দুর্গত মানুষদের ত্রাণশিবিরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ও তাদের ত্রাণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে পুরসভার পক্ষ থেকে।

মহানন্দা নদীর পাশাপাশি ফুঁসছে টাঙ্গন নদী। টাঙ্গন নদীর জলে গাজলের চাকনগর সালাইদাঙা সহ বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। হবিবপুর ব্লকের আইহো, ও বুলবুলি চন্ডী এলাকায় জলমগ্ন হয়ে গেছে বেশ কিছু গ্রাম।

গাজোলের বিধায়ক দিপালী বিশ্বাস বলেন, পরিস্থিতি ক্রমশ ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে। যদিও আমরা উদ্ধারকার্য চালাচ্ছি ও ত্রাণ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। উত্তরবঙ্গে অতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close