fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা বন্ধের নোটিশ, রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ রোগীর পরিবারদের

শুভেন্দু বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল: করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ম্যানেজার সহ অনেকেই। বেশ কয়েকজন অসুস্থ। হাসপাতাল চালানোর মতো চিকিৎসক, নার্স ও কর্মী পাওয়া যাচ্ছেনা। এমন পরিস্থিতিতে চিকিৎসা পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ার নোটিশ টাঙালো রানিগঞ্জের একটি বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বলা হয়েছে আগামী ৩০ আগষ্ট পর্যন্ত এই হাসপাতাল বন্ধ থাকবে।

এরফলে চরম বিপাকে পড়েন ওই হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীরা। এই নোটিশকে ঘিরে রবিবার সকাল থেকে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় হাসপাতাল এলাকায়। দুপুরের পরে এর প্রতিবাদে রানিগঞ্জের ৬০ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন রোগী ও রোগী পরিবারের সদস্যরা। এরফলে ডায়ালাইসিস করানো আসানসোলের রেলপারের তেহেরুন্নিসা, রানিগঞ্জের সুভাষ গুপ্ত, শেখর কুমার পাসোয়ানের মতো মানুষেরা সমস্যায় পড়েছেন। সেইসব রোগীর পরিবারের সদস্যরাই এদিনের অবরোধ বিক্ষোভে সামিল হন। শেষ পর্যন্ত পুলিশি হস্তক্ষেপে সন্ধ্যার পর অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

জানা যায়, রানিগঞ্জের এই বেসরকারি হাসপাতালের কর্মীদের মধ্যে ম্যানেজার সহ ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। একজন কলকাতার হাসপাতালে ভর্তিও আছেন। এই কথা জানিয়ে রবিবার থেকে এই হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ার কথা জানানো হয়। শনিবার তা জানানো হয়। এরফলে এই হাসপাতালে ডায়লোসিস করানো রোগীরা চরম বিপাকে পড়েন। প্রত্যেকেই হাসপাতালের বাইরে এই নোটিশ দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

এই হাসপাতালের প্রায় ৭০ জন রোগীর ডায়লোসিস হয়। তাদের অভিযোগ, হঠাৎ করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনও আগাম বার্তা না দিয়ে এই ধরনের সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছে? বিক্ষোভকারীরা বলেন, বেশিরভাগ হাসপাতালেই ডাইয়ালাইসিস বন্ধ হয়ে রয়েছে। অনেক অসহায় গরীব পরিবার কম পয়সায় এই হাসপাতালেই চিকিৎসা করিয়ে থাকেন।

হাসপাতালে সামনেই ৬০ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখানো শুরু হলে পুলিশের বিশাল বাহিনী এসে পৌঁছায়। শেষমেশ বিষয়টি পাঞ্জাবীমোড় ফাঁড়ির আইসি সৌমেন বন্দ্যোপাধ্যায় ফোনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন। সিদ্ধান্ত হয় অন্য চিকিৎসা পরিষেবা চালু না হলেও আপাতত কম রোগীদের নিয়ে ডায়লোসিসের চিকিৎসা চালু থাকবে। এরপরেই অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষোভকারীরা। এই প্রসঙ্গে হাসপাতালের তরফে ভুনা কুমার বলেন, কিছু করার নেই আমাদের। জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতর জানায়, গোটা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close