fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কলকাতা ছাড়ছেন ভিন রাজ্যের নার্সরা! স্বাস্থ্য পরিষেবা ভেঙে পড়ার আশঙ্কা চিকিৎসকদের

রক্তিম দাশ, কলকাতা: করোনা আবহে নয়া সংকট। বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত ভিন রাজ্যের নার্সরা কলকাতা ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। মহামারি সংক্রমণের লড়াইয়ে দিশেহারা চিকিৎসা ব্যবস্থার মধ্যেই এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য পরিষেবা ভেঙে পড়ার আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা।

 

 

কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালগুলো মূলত ভিন রাজ্যের নার্সের উপর নির্ভরশীল। করোনা পরিস্থিতির সংকটজনক সময়ে মণিপুর সরকার কলকাতা থেকে ১৮৫ জন নার্সকে রাজ্যে ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। এর পাশাপাশি ওড়িশা ও ত্রিপুরা থেকে আসা, বিভিন্ন হাসপাতালের নার্সরাও ফিরে যাচ্ছেন তাঁদের রাজ্যে। সূত্রের খবর, চিকিৎসা পরিষেবা দিতে গিয়ে করোনা সংক্রমণের ভয়েই তাঁরা ফিরে যাচ্ছেন।
বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিশিষ্ট ক্যানসার বিশেষজ্ঞ তথা ন্যাশানাল ডক্টর অ্যাসিয়েশনের রাজ্য সম্পাদক ডা, সোমনাথ সরকার বলেন,‘ ভিন রাজ্যের নার্সরা স্বাস্থ্যজনিত নিরাপত্তাহিনতার কারণে চলে যাচ্ছেন। এটা এরাজ্যের নার্সের ক্ষেত্রেও হবে। আমরাদের রাজ্যে কোনও পরিকল্পনাও নেই পরিকাঠামোও নেই। এখানে মাইনে বেশি বলেই তাঁরা আসতেন। এর চাপ সরকারি পরিষেবাতেও পড়বে। কারণ সরকারি বেশিরভাগ হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা হচ্ছে। বেসরকারিতে অন্য রোগের চিকিৎসাগুলো হচ্ছিল। এবার তা বন্ধ হবে। এটা সরকারিভাবে সামাল দেওয়া সম্ভব নয়।’

 

 

সোমনাথবাবুর দাবি,‘ এটা শুরু। আরও ভয়াবহ দিন আসতে পারে। এত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছেন। তার রিপ্লেস হবে কি করে? রাজ্য সরকার এজন্য দায়ি। আমরা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ চাই।’
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের উত্তর-পূর্বের সিইওএমএইচ ডা. অর্চনা মজুমদার বলেন,‘ রাজ্য সরকারের দূরর্শীতার অভাবে রাজ্যবাসীকে ভুগতে হবে। বাংলায় জনসংখ্য অনুসারে অন্য রাজ্যগুলোর তুলনায় অনেক কম চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী আছে। এখানে নাসিং পড়ার যে পরিকাঠামো দরকার ছিল তা হয়নি। যার ফলে আমরা দক্ষিণ ভারত এবং উত্তর-পূর্বের উপর নির্ভরশীল। দুমাস হাতে পেয়েও রাজ্য সরকার কোভিডকে মোকাবিলা করার জন্য স্বাস্থ্যকর্মী তৈরি করেনি। যাঁরা কাজ করছেন তাঁরা ছুটি ছাড়া টানা কাজ করে যাচ্ছেন যেকোনও সময়ে এই ব্যবস্থা ভেঙে পড়তে পারে যদি বিকল্প না ভাবা হয়।’

 

 

কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক গৌরি কুমড়া বলেন,‘ পরিস্থিতি খুব খারাপ। নার্সিং স্টাফরা মানসীক ভাবে ভেঙে পড়ছেন। এদের চলে যাওয়াটা সরকারি ভাবে আটকানো দরকার। না হলে খুব বড় সংকট দেখা দেবে। নার্সিং স্টাফদের আমাদের থেকেও দায়িত্ব বেশি নিয়ে কাজ করতে হয়। আমরা বিকল্পভাবে ট্রেনি স্টাফদের কাজে লাগাচ্ছি একজন অভিজ্ঞ নার্সকে সঙ্গে রেখে। সরকারের উচিত যাঁরা অবসরে গিয়েছেন তাঁদের পুনরায় কাজে ফিরিয়ে নিয়ে যতটা সম্ভব পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করা।’

Related Articles

Back to top button
Close