fbpx
কলকাতাদেশহেডলাইন

কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ে কেন্দ্রের কাছে আপত্তি

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: কভিড সংক্রমণের চলতি পরিস্থিতির মধ্যেই রাজ্যের কলেজ বিশ্ব বিদ্যালয়গুলির ওপর পরীক্ষা নেওয়ার জন্য জোর দিয়েছে কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক ও উচ্চ শিক্ষা মঞ্জুরি কমিশন। তাই এবার কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে কেন্দ্রকে চিঠি দিল রাজ্য। কারণ হিসেবে চিঠিতে বলা হয় আম্ফান ও করোনার জোড়া ফলায় বিদ্ধ রাজ্য। সে ক্ষেত্রে রাজ্যের বেশির ভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এই মুহুর্তে করেন্তাইন সেন্টার বা  আমফান দুর্গতদের আবাস স্থল। তাই এই অবস্থায় দ্রুত পরীক্ষার ব্যবস্থা করা সম্ভব নয়।
ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকার ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা বাধ্যতামূলক ভাবে নিতে হবে বলেছে। এ বিষয়ে নির্দেশিকা জারি করেছে বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন এবং মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক। সেই পরিপ্রেক্ষিতে চিঠি লিখে আপত্তি জানালো রাজ্য।
রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা সচিব মোনিশ জৈন মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের শিক্ষা সচিবকে চিঠি দিয়েছেন। ওই চিঠিতে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে রাজ্যের বহু ছাত্রছাত্রীদের কাছে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সংযোগ নেই। তাই অনলাইন পরীক্ষার ক্ষেত্রে সমস্যা হবে। ট্রেন চলছে না। বহু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে করেনতাইন সেন্টার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পাশাপাশি অভিভাবকরা সরকারকে জানিয়েছে এই অবস্থায় পরীক্ষা না নিতে। তাই কেন্দ্রীয় সরকার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করুক। ছাত্রদের স্বার্থে পর্যালোচনা উচিত বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। একইসঙ্গে উল্লেখ করা হয়েছে রাজ্যের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় গুলির সঙ্গে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে বাধ্যতামূলক শব্দটি যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোর পরিপন্থী নয়।
ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলি অ্যাডভাইজারি পাঠিয়েছে রাজ্যকে। একাধিক বিশ্ববিদ্যালয় ৮০শতাংশ এবং ২০ শতাংশের  মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সুপারিশে বলা হয়েছে ৮০ শতাংশ মূল্যায়ন করা হবে পূর্ববর্তী পরীক্ষা সেমিস্টার এর মধ্যে সবথেকে বেশি নম্বরের ভিত্তিতে। অন্যদিকে কুড়ি শতাংশ মূল্যায়ন করা হবে ইন্টার্নাল পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে।

Related Articles

Back to top button
Close