fbpx
অফবিটপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লকডাউনে থানায় কমিউনিটি কিচেন গড়ে অসহায় মানুষের হাতে খাবার তুলে দিচ্ছেন ওসি

ফিরোজ আহমেদ, ভাঙড়: লকডাউনে ঘরবন্দি অসহায় মানুষ সহ পরিযায়ী শ্রমিকদের মুখে খাবার তুলে দিতে থানাতেই কমিউনিটি কিচেন গড়ে তুলেছেন কলকাতা লেদার কম্পলেক্স থানার ওসি। কলকাতা লেদার কম্পলেক্স থানা এবং বানতলা চর্মনগরীতে ধারাবাহিকভাবে চলছে কমিউনিটি কিচেন। এখান থেকে প্রতিদিন প্রায় ২০০০ জন পরিযায়ী শ্রমিক ও অসহায় দুঃস্থ লোকের কাছে রান্না করা খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন পুলিশ কর্মীরা।

লকডাউনের জেরে চরম বিপাকে ভাঙড়ের কলকাতা লেদার কম্পলেক্স থানা এলাকার ভোজেরহাট, কড়াইডাঙ্গা, তাড়দহ, বামনঘাটা-সহ একাধিক এলাকার মানুষ। হাজার হাজার পরিযায়ী শ্রমিক, দিন-মজুর, পরিচারিকার বসবাস এই এলাকায়। গোটা এলাকা করোনার জেরে এখন গৃহবন্দি। কাজ নেই। ফলে খাবারও নেই।

অসহায় হতদরিদ্র এই সমস্ত পরিবারদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন কলকাতা লেদার কম্পলেক্স থানার পুলিশ আধিকারিক স্বরুপ কান্তি পাহাড়ি। থানাতেই গড়ে তুলেছেন কমিউনিটি কিচেন। এমনিতেই লকডাউনের জেরে এলাকায় পথ দুর্ঘটনা, পারিবারিক হিংসা, গোষ্ঠী সংঘর্ষ নেই বললেই চলে। তাই কমিউনিটি কিচেনের ব্যাপারে ফোকাস করতে কোন বাধা নেই, জানাচ্ছেন পুলিশ কর্মীরা। লম্বা সময়ের লকডাউনে কোনওদিন ডাল, ভাত, সোয়াবিনের সবজি। আবার কোনওদিন ডিমের ঝোল আর ভাত। প্রতিদিন দুপুরে এভাবেই অসহায় মানুষের হাতে খাবার তুলে দিচ্ছেন লেদার কম্পলেক্স থানার ওসি স্বরুপ কান্তি পাহাড়ি। যা পেয়ে মুখে হাসি ফুটছে এলাকার দিন- আনা, দিন-খাওয়া মানুষগুলোর মুখে।

এ বিষয়ে পুলিশ আধিকারিক স্বরুপ কান্তি পাহাড়ি বলেন, “কষ্ট হলেও মানুষের পাশে আমরা আছি, প্রতিনিয়ত থানায় থেকে মানুষের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হচ্ছে এর পাশাপাশি পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য লেদার কম্পলেক্সের ভিতরে দুটি কমিউনিটি কিচেন চলছে। সেখানে ১৫০০ মানুষের দুই বেলা খাওয়ানো হচ্ছে থানার কমিউনিটি কিচেন থেকে দুই বেলা ৫০০ মানুষ কে খাওয়ানো হচ্ছে।”

Related Articles

Back to top button
Close