fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ঝাড়গ্রামে ফুটবল একাডেমি তৈরি করার জন্য মাঠ পরিদর্শন করলেন যুব কল্যাণ দপ্তর এর আধিকারিকরা

 সুদর্শন বেরা, ঝাড়গ্রাম: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত ৭ অক্টোবর ঝাড়গ্রাম স্টেডিয়ামে ঝাড়গ্রাম জেলা প্রশাসনের প্রশাসনিক বৈঠক যোগদান করেছিলেন। ওই বৈঠকে ঝাড়গ্রাম জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর অজিত মাহাতো মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ঝাড়গ্রাম জেলায় একটি ফুটবল একাডেমি তৈরি করার আবেদন জানান। তখন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাকে বলেছিলেন বিষয়টি আমি দেখে নেব। তাই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে ৭ নভেম্বর শনিবার যুব কল্যাণ দফতর-এর প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি বরুণ কুমার রায়, স্পেশাল সেক্রেটারি মুকেশ সিং, জয়েন্ট সেক্রেটারি গৌতম বিশ্বাস ঝাড়গ্রামে আসেন।

যুব কল্যাণ দফতর-এর আধিকারিকর ঝাড়গ্রামের জেলাশাসক আয়েশা রানি সহ অন্যান্য আধিকারিকদের সঙ্গে নিয়ে ফুটবল একাডেমির জন্য মাঠ দেখতে যান। যুব কল্যাণ দপ্তর এর আধিকারিকরা ঝাড়গ্রাম এর শিলদা ও ঝাড়গ্রাম শহরের কয়েকটি মাঠ ঘুরে দেখেন।  ফুটবল একাডেমি তৈরি করার জন্য কোন মাঠকে নেওয়া  হবে তা তারা খতিয়ে দেখার কাজ শুরু করেন ।সেই সঙ্গে জেলাশাসক এর সঙ্গে যুব কল্যাণ দফতর-এর প্রতিনিধি দল  ফুটবল একাডেমি তৈরি নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেন।

মুখ্যমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি প্রতিশ্রুতি এক মাসের মাথায় পূরণ করবেন তা ভাবতেই পারেননি অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম এর বাসিন্দারা। তাই মুখ্যমন্ত্রী তার প্রতিশ্রুতি পূরণ করায় খুশি অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম এর ফুটবল খেলোয়াড় থেকে ফুটবলপ্রেমীরা। তাই মুখ্যমন্ত্রীকে তারা ধন্যবাদ জানিয়েছেন। ধন্যবাদ জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের কো অডিনেটর অজিত মাহাতো। তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী যা কথা দেন তিনি তা পূরণ করেন। মুখ্যমন্ত্রী কোনদিন মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেয়নি । তাই উন্নয়নের কান্ডারী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি শ্রদ্ধা , অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান।

Related Articles

Back to top button
Close