fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অমানবিক, বৃদ্ধাকে চড় মেরে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল পুত্রবধূর বিরুদ্ধে

মালদা: মায়ের কোলে পিঠে মানুষ হওয়া ছেলে এখন স্ত্রীর গোলাম, তাই বৃদ্ধা শাশুড়িকে চড় মেরে, কান ধরে বাড়ি থেকে বার করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পুত্রবধূর বিরুদ্ধে। ৮০ বছর বয়সে অবশেষে ওই বৃদ্ধার এখন আশ্রয় হয়েছে লোকের বারান্দা । আর পেশা ভিক্ষাবৃত্তি। বহু কষ্টে দিন কাটছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার ভিঙ্গল গ্রাম পঞ্চায়েতের বৈরাট গ্রামের বৃদ্ধা তসলিমা বেওয়ার (৮০) ।

 

 

বয়সের ভাড়ে ঠিকমতো হাঁটাচলা করতে পারেন না ওই বৃদ্ধা । তার ওপর আবার এক চোখে দেখতে পান না। বাড়িতে থেকেও পুত্রবধুর অত্যাচার আর সহ্য করতে পারেন নি তসলিমা বেওয়া । অবশেষে ওই বৃদ্ধা কে তাড়িয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ভিক্ষা করে কোনোরকমে কাটছে দিন। খোলা আকাশের নিচে কারো দোকান ঘরের চালার নিচেই কোনরকমে দিন কাটছে ওই বৃদ্ধার।

 

 

বৃদ্ধা তসলিমা বেওয়া বলেন, স্বামী মুসলেম আলি প্রায় সাত বছর আগে মারা গিয়েছেন। তার একমাত্র ছেলে সমূহা আলি, চাঁচল আশাপুরের ভেবা গ্রামে বিয়ে করে সংসার পেতেছে। ছেলে বাড়ি বিক্রি করে দিয়েছে। ছেলের সাথে থাকার সাধ করেছিলাম। কিন্তু পুত্রবধূ মারধর দিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। ওই বৃদ্ধার অভিযোগ, ছেলে এবং পুত্রবধূর সাথে যখন ছিলাম তখন চরম অত্যাচার চলছিল আমার ওপর। খেতে দিত না । সব সময় নোংরা কথা বলতো। মারধর করতো। অবশেষে চড়-থাপ্পড় মেড়ে পুত্রবধূ আমাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। এখন লোকের বারান্দায় হয়েছে আমার আশ্রয়স্থান । এখনো পর্যন্ত মেলেনি বিধবা অথবা বার্ধক্য ভাতা।

 

 

ভিঙ্গোল গ্রামের স্থানীয় এক চিকিৎসক জামিউল হক বলেন, কয়েকদিন ধরেই ওই বৃদ্ধা তুলসিহাটা বাস স্ট্যান্ডের কাছে অসহায় অবস্থায় পড়েছিল। ওই বৃদ্ধার সেবা-যত্ন করার পাশাপাশি তার কাছ থেকে সমস্ত ঘটনার কথা শুনেছি। এব্যাপারে পঞ্চায়েত ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপের দাবি করা হয়েছে।

 

 

হরিশ্চন্দ্রপুর ১ ব্লকের ভিডিও অনির্বাণ বসু জানিয়েছেন , বিষয়টি জানা ছিল না। স্থানীয় গ্রামবাসীদের মারফত ওই বৃদ্ধার অসহায়তার কথা শুনেছি। সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার।

Related Articles

Back to top button
Close