fbpx
অসমহেডলাইন

অবৈধ পাথর পাচারে বাধা দেওয়ায় কালাইনে সংঘর্ষে আহত এক, আটক ট্রাক

নিজস্ব প্রতিবেদক, কাটিগড়া: অবৈধ পাথর বাণিজ্যে বাধা দেওয়ায় হামলার শিকার এক যুবক। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে কালাইন ভাটগ্রামে। অবৈধ পাথর বোঝাই দু’টি ডিআই ট্রাক স্থানীয়রা আটক করে বন বিভাগের কাছে সমঝে দিয়েছেন। আরও এক মিনি টিপার পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। সিন্দুরা থেকে অবৈধ ভাবে ওই রুট ধরে প্রতিদিন পাথর পাচার হয় বলে অভিযোগ। একাংশ বন কর্মীর মদতেই চলছে অবৈধ পাথর বাণিজ্য।

অবৈধ পাথর বাণিজ্যের মুক্তাঞ্চল হয়ে উঠছে বন বিভাগের কালাইন রেঞ্জ এলাকার বিভিন্ন মহাল। একাংশ বন কর্মীর মদতে প্রায় প্রতিদিন অবৈধ ভাবে বিভিন্ন মহাল থেকে পাচার হচ্ছে পাথর।এমনই এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার রাতে কালাইন ভাটগ্রামে ঘটে গেল মারপিটের মতো ঘটনা। অবৈধ পাথর পাচার নিয়ে প্রতিবাদ করায় চোরাকারবারিদের রোষে পড়ে আহত হলেন আফতাব আহমেদ নামের ভাটগ্রামেরই এক যুবক। তাঁর মাথা ফাটিয়ে দেয় অবৈধ পাথর পাচারকারীরা।শনিবার আহত ওই যুবক কাটিগড়া থানায় এনিয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশে দেওয়া এজাহারে আফতাব আহমেদ তাপাদারের অভিযোগ, ছয় নম্বর জাতীয় সড়ক থেকে কোনাপাড়া গ্রান্ড যাওয়ার রাস্তা ব্যবহার করে প্রায় প্রতিদিন চোরাই পাথর পাচার করা হয়। এতে ওই রাস্তা ভাঙতে শুরু করেছে। ফলে এনিয়ে প্রতিবাদ করেন তিনি। কিন্তু কে শুনে কার কথা। বেপরোয়া ভাবে ওই রাস্তা দিয়ে পাথরের চোরাচালান চলছিল।শুক্রবার রাত আনুমানিক এগারোটার সময় এএস এগারো ডিসি / তিন এক সাত ছয়, এএস এগারো ডিসি / এক চার আট আট, এএস এগারো সিসি / আট দুই এক নয় নম্বরের গাড়ি দিয়ে পাথর পাচার করার সময় তিনি বাধা দিলে চোরাকারবারিরা তাঁর উপর আক্রমণ করেন। এতে তিনি গুরুত্বর ভাবে আহত হন। তাঁর চিৎকার শুনে আশাপাশের লোকজন জড়ো হলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে বন বিভাগের কালাইন রেঞ্জ অফিসে খবর পাঠানো হলে বন কর্মীরা গিয়ে দু’টা পাথর বোঝাই গাড়ি আটক করে নিজেদের হেফাজতে নেন। একটা গাড়ি পালিয়ে যায়।

এজাহারে আছান আহমেদ, হাসান আহমেদ, হোসেন আহমেদ, রুহেল আহমেদ, আলি আহমেদ, তাজিম উদ্দিন এবং সাহাব উদ্দিনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। আফতাব জানান, এই রুট ধরে প্রতিদিন সিন্দুরা থেকে মিনি ট্রাক, ডিআই ট্রাকে করে চলে পাথর পাচার। ত্রিশ থেকে চল্লিশ লরি পাথর প্রতিদিন পাচার করা হয়। এতে রাস্তা তো ভাঙছেই সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব। কিন্তু এরপরও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বন বিভাগ।

রেঞ্জ অফিসার পিংকু সিংহ জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে শুক্রবার রাতে দু’টা পাথর বোঝাই ডিআই ট্রাক আটক করা হয়েছে। এই রুট ধরে প্রতিদিন পাথর পাচারের অভিযোগ অবশ্য অস্বীকার করেন। বলেন, একাংশ লোক এই রুট ধরে অবৈধ ভাবে পাথর পাচারের চেষ্টা চালায় যদিও যতটুকু সম্ভব তা প্রতিহত করার চেষ্টা চালান বন কর্মীরা। রেঞ্জ অফিসার অস্বীকার করলেও পাথর পাচারকে কেন্দ্র করে মারপিট এবং ঘটনাস্থল থেকে দু’টি পাথর বোঝাই মিনি ট্রাক আটকের ঘটনা কিন্তু অন্য কথা বলছে। কালাইনের গুমড়া মহাল থেকেও অবৈধ পাথর পাচারের অভিযোগ রয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close