fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বুদবুদের শিশু খুনে ধৃত জ্যাঠতুতো দাদার পুলিশ হেফাজত 

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: বুদবুদের রনডিহায় শিশু খুনে মুল অভিযুক্তকে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিল আদালত। তবে কী কারণে খুন, তা নিয়ে ধোঁয়াশায় পরিবার ও এলাকাবাসী। উল্লেখ্য, গত ১৪ আগষ্ট বুদবুদের রনডিহায় রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যায় সানি বাগদী নামে এক বছর সাতেকের শিশু। খবর চাউর হতেই পরিবারের লোকজন ও পাড়া প্রতিবেশীরা আশপাশের পুকুরে তল্লাশীও করে। কিন্তু কোথাও হদিশ না মেলায় শেষপর্যন্ত পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে। তারপর ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ।
তদন্তে নেমে শিশুটির জ্যাঠাতুতো দাদা নিলু বাগদীকে আটক করে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই শিশুটির উধাও রহস্য প্রকাশ্যে আসে। পরদিন অর্থাৎ রবিবার বাড়ী থেকে প্রায় দু’শো মিটার দুরে বস্তাবন্দী মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এদিকে পুলিশ নিলু বাগদী ও তার বাবা-মাকে আটক করে নিয়ে যায়। পরে লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতার করে। প্রশ্ন ওঠে, নিলু বাগদী কে? নিলু বাগদী একসময় গলসী কলেজের এক অধ্যাপকের গাড়ী চালাত। ওই সময় চুরির ঘটনায় ধরা পড়ে। তারপর কাজ থেকে বিতাড়িত হয়ে বাড়ীতে ছিল। গ্রামে জুয়া ও মদের নেশায় আসক্ত হয়। একাধিক ছাগল চুরির ঘটনায় ধরা পড়ে। এমনকি তার নিজের পরিবারে অশান্তি লেগেই থাকত। অত্যাচারে তার স্ত্রী মাস ছয়েক আগে বাপের বাড়ী চলে যায়। সোমবার রনডিহা গ্রাম ছিল থমথমে। গোটা গ্রামে শোকের ছায়া। পরিবারের সঙ্গে গ্রামবাসীদের একটা দাবী, অভিযুক্তদের শাস্তি।
স্থানীয় বিজেপি নেতা তপন বাগদী জানান,” যেভাবে একজন নিষ্পাপ শিশুকে নির্মম ভাবে খুন করেছে। ঘটনায় জড়িতদের কঠোর থেকে কঠোরতম শাস্তির দাবী করছি।” স্থানীয় চাকতেঁতুল প্রধান অশোক ভট্টাচার্য জানান,” নিরিহ শিশু। এমন নৃশংসভাবে খুন করছে, ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী করছি।” সোমবার ধৃত নিলু বাগদী, নিলুর বাবা মুক্তো বাগদী ও মা মমতা বাগদীকে দুর্গাপুর আদালতে তোলা হয়। আদালতে বিচারক নিলু বাগদীকে দশদিনের পুলিশ হেপাজতের নির্দেশ দেয়। এসিপি (কাঁকসা) শ্বাশতী শ্বেতা সামন্ত জানান,” ঘটনার তদন্ত চলছে। মুল অভিযুক্তকে হেপাজতে নেওয়া হয়েছে।”

Related Articles

Back to top button
Close