fbpx
দেশহেডলাইন

প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আত্মনির্ভর হওয়ার পথে আরও এক কদম, এবার লাদাখের আকাশে টহল স্বদেশি হেলিকপ্টারের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আত্মনির্ভর হওয়ার পথে আরও এক কদম এগিয়ে গেল ভারত। এবার লাদাখের আকাশে টহল দিবে স্বদেশি হেলিকপ্টার। সূত্রের খবর, চিনা আগ্রাসনের জবাবে লাদাখে মোতায়েন করা হয়েছে সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে নির্মিত ‘লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টার’।

জানা গিয়েছে, দেশীয় বিমান নির্মাণকারী সংস্থা Hindustan Aeronautics Limited (HAL) নির্মিত দু’টি LCH প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর লাদাখের আকাশে টহল দিচ্ছে। অত্যন্ত হালকা ওজনের বিমানগুলিতে রয়েছে ৭০ মিলিমিটার রকেট ও অত্যাধুনিক স্বয়ংক্রিয় কামান। লাদাখের মতো পাহাড়ি অঞ্চলে কাজ করার জন্য বিশেষভাবে স্থলসেনা ও বায়ুসেনার জন্য এই হেলিকপ্টারটি তৈরি করা হয়েছে।

লালফৌজের আগ্রাসনের কথা মাথায় রেখে লাদাখ সীমান্তে মিরাজ, সুখোই, মিগ-২৯ এর মতো কমব্যাট ফাইটার জেট চক্কর দিচ্ছে। এমনকী বায়ুসেনার শক্তি আরও বাড়াতে আমেরিকার থেকে সদ্য কেনা পাঁচটি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার পাঠানো হবে লাদাখ সীমান্তে। বিশ্বের অত্যাধুনিক মাল্টিরোল হেলিকপ্টারগুলির মধ্যে অ্যাপাচে এএইচ-৬৪ অন্যতম। ২০১৫ সালে প্রথম বোয়িংকে ২২টি বিধ্বংসী অ্যাপাচে কপ্টারের বরাত দেয় ভারত। সব মিলিয়ে চিনকে রুখতে সীমান্তে তৎপর ভারতীয় সেনা।

উল্লেখ্য, দেশীয় শিল্প মজবুত কীর্তয়ে ও প্রতিরক্ষায় আত্মনির্ভর হওয়ার লক্ষ্যে বেশ কিছু হাতিয়ার ও সামরিক সরঞ্জামের আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে কেন্দ্র। ওই তালিকায় রয়েছে লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টারও। বর্তমানে ফৌজের চাহিদা মেটাতে প্রয়োজন অন্তত ১৫০টি হালকা হেলিকপ্টারের। যুদ্ধ ক্ষেত্রে ইনফ্যান্টরি ডিভিশনগুলিকে মদত দেবে এই চপারগুলি।

Related Articles

Back to top button
Close