fbpx
কলকাতাহেডলাইন

তৃণমূলের লড়াইয়ের এক এবং অদ্বিতিয় মুখ মমতা, দিলীপের পালাটা পার্থ

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়,কলকাতা: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলের লড়াইয়ের এক এবং অদ্বিতিয় মুখ। তা আরও একবার স্পষ্ট করে দিলেন তৃণমূলের মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টপাধ্যায়। রবিবার বেহালায় সাংবদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘অনেকের থাকা, না থাকা, দোদুল্যমান। আমাদের অসুবিধা তখনই হবে যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থাকবেন না।’ মমতাই দলের মুখ হলেও দলের অন্দরের ভাঙনের কথা এদিন পার্থ কার্যত এক প্রকার স্বীকার করে নিলেন নিজে মুখেই। একুশের নির্বাচনের আগে দলের দোদুল্যমান অবস্থার কথা বলে বুঝিয়ে দিলেন অনেকেই বিজেপিতে যাওয়ার জন্য পা বাড়িয়ে আছেন।

তৃণমূলের বেশকিছু নেতা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছেন বলে দীর্ঘদিন দাবি করে আসছে বিজেপি। তার মধ্যে অন্তত হাফ ডজন সাংসদ রয়েছেন বলে দাবি তাদের। এতদিন সেই দাবিকে ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেতারা। রবিবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্যে স্পষ্ট হল, কিছু সারবত্তা রয়েছে বিজেপির দাবিতে। তৃণমূলের মহাসচিব বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া কার কত দৌড় আমাদের দেখা আছে। রাজনৈতিকভাবে আমরা শক্তিশালী, কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাদের মাথায় আছেন’।

এদিন বেহালায় ফের সাংবাদিকদের প্রশ্নে উঠে আসে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিকল্প নামের কথা। সাংবাদিকদের সেই প্রশ্নকে কড়া ভাষায় প্রতিহত করলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি জানান, বেহালায় শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ওয়ার্ডের দায়িত্বে রয়েছেন রত্নাই। তিনিই সেখানকার সংগঠন দেখভাল করবেন।

এদিন বেহালা পশ্চিম তৃণমূল কংগ্রেসের চারটি ওয়ার্ডের 129 130 131 132 রাজনৈতিক কর্মীসভায় পার্থ চ্যাটার্জি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সুব্রত বক্সী, মালা রায়, দেবাশীষ কুমার এবং বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতা নেত্রীরা।

বেহালাবাসীর উদ্দেশ্যে পার্থ চ্যাটার্জি বলেন, ‘বেহালাতে বিভিন্নভাবে অশান্তি ছড়ানোর চক্রান্ত চলছে। তাই তা প্রতিহত করতে হবে। আমাদের লড়াই আমরা মমতা ব্যানার্জিকে সামনে রেখেই লড়ব। বেহালায় আমরা অনেক উন্নতি করেছি। মমতা ব্যানার্জি উন্নয়নের প্রকল্প দিয়ে বেহালাকে ঢেলে সাজিয়েছে, সেটা বেহালার মানুষকে ভুলে গেলে চলবে না। সব কাজকে ফেলে রেখে তৃণমূল কংগ্রেস দলকে দেখতে হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।’ পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখে এদিন তার উন্নয়নের কর্মসূচি ও সংগ্রামের ইতিহাস নিয়ে আলোচনা হয় কর্মীসভাতে।

Related Articles

Back to top button
Close