fbpx
অন্যান্যঅফবিটপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নিজেদের নুন আনতে পান্তা ফুরোয়, তাও মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে সঞ্চয়ের অর্থদান ওঁদের

বর্ণালী রায়, দক্ষিণ দিনাজপুর: তারা প্রত্যেকেই অভাবি পরিবারের সদস্যা। স্কুলে রান্নার কাজ করে সামান্য আয় দিয়ে চলে সংসার। কিন্তু করোনা মোকাবিলায় লকডাউন পরিস্থিতির মাঝে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর ভাবনা নিয়ে নিজেদের পরিবারের অভাব-অনটনকে পিছনে রেখে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে অর্থ দান করতে এগিয়ে এলেন তারাও।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি ব্লকের মহীপালের শেরপুর এলাকার শেরপুর টাঙ্গন এস.জি.এস.ওয়াই স্বনির্ভর দলের সদস্যারা করোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করলেন ৫০০০ টাকা। শুক্রবার শেরপুর টাঙ্গন এসজিএসওয়াই স্বনির্ভর দলের দল নেত্রী তৈয়বা খাতুন ও সহ দল নেত্রী বাসন্তী রায় তাদের স্বনির্ভর দলের সদস্যাদের সঞ্চয়কৃত অর্থ ৫০০০ টাকা চেক আকারে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দেওয়ার জন্য তুলে দেন কুশমন্ডি ব্লকের বিডিও শৈপ লামার হাতে।

জানা গেছে, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি ব্লকের কুশমন্ডি পূর্ব চক্র অধীনস্থ মহীপালের শেরপুর এলাকায় রয়েছে শেরপুর অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়। জানা গেছে, এই শেরপুর অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মিড ডে মিল রান্নার কাজের সঙ্গে যুক্ত শেরপুর টাঙ্গন এসজিএসওয়াই স্বনির্ভর দল। এও জানা গেছে এই স্বনির্ভর দলের অধিকাংশ সদস্যাদের পরিবার-ই অভাবি।

যাদের বেশিরভাগই সারাবছর স্কুলে রান্নার কাজ করে পরিবারের হাল টানতে সাহায্য করেন। যাদের মধ্যে অনেকেই হয়তো ভবিষ্যতের কথা ভেবে তাদের আয়িত অর্থ থেকে কিঞ্চিৎ অর্থ সঞ্চয় করেছিলেন। কিন্তু করোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল গড়ার তাদের কানে পৌঁছনোর পর শেরপুর টাঙ্গন এসজিএসওয়াই স্বনির্ভর দলের সদস্যারা তাদের কিঞ্চিৎ সঞ্চিত অর্থ একত্রিত করে এদিন বিডিও-র মারফৎ চেক আকারে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের জন্য।

নিজেদের পরিবারের আর্থিক প্রতিবন্ধকতাকে দূরে সরিয়ে রেখে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার শেরপুর টাঙ্গন এসজিএসওয়াই স্বনির্ভর দল-এর এহেন ভাবনাকে ইতিমধ্যেই কুর্ণিশ জানিয়েছে জেলার সাধারণ মানুষরা।

শেরপুর অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহ শিক্ষক তমাল কর এই প্রসঙ্গে এই উদ্যোগ অত্যন্ত ভালো। তারা সারা বছর রান্নার কাজ করে যে সামান্য টাকা জমিয়েছিলেন তা তারা মানুষের বিপদে পাশে দাঁড়াতে দান করেছেন।

শেরপুর টাঙ্গন এসজিএসওয়াই স্বনির্ভর দলের দলনেত্রী তৈয়বা খাতুন ও সহ দল নেত্রী বাসন্তী রায় এদিন জানিয়েছেন বিদ্যালয়ে রান্নার কাজ করে যে টাকা পান সেই টাকা এদিন তারা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন। একই সঙ্গে এই বিপদের সময়ে অন্যান্য স্বনির্ভর দলগুলিকেও তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের পাশে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান এদিন তারা।

Related Articles

Back to top button
Close