fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

ঈদের আগে বন্দী প্রত্যার্পণ চুক্তি আফগান-তালিবানের, স্থিতাবস্থার ইঙ্গিত?

দোহা, (সংবাদ সংস্থা): অবশেষে আফগান সরকারের সঙ্গে শর্তসাপেক্ষে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছে তালিবান। দোহায় তালিবানের রাজনৈতিক দপ্তরের মুখপাত্র সোহেল শাহিন এক টুইট বার্তায় এই আগ্রহের কথা জানান।

টুইট বার্তায় সোহেল শাহিন বলেন, “আসন্ন ঈদুল আজহার আগে তালিবান তাদের হাতে থাকা সব সরকারি বন্দিকে মুক্তি দিতে রাজি আছে। তবে শর্ত হচ্ছে, তারা সরকারের কাছে যে তালিকা দিয়েছেন সে অনুযায়ী সরকারি কারাগারে আটক সকল তালিবান বন্দিকে মুক্তি দিতে হবে।” গত বৃহস্পতিবার আফগান সেনাবাহিনীর বিমান হামলায় ৪৫ তালিবান সদস্য নিহত এবং ১৬ জন আহত হওয়ার পরেই এই আগ্রহ প্রকাশ করেছে তালিবান।

উল্লেখ্য, তালিবান দীর্ঘদিন ধরে আমেরিকার সঙ্গে কথিত শান্তি আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার পর চলতি বছরের মার্চ মাসে কাতারের রাজধানী দোহায় চুক্তি সই করে। তবে আমেরিকার সঙ্গে আলোচনা করলেও কাবুল সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে এখন পর্যন্ত অস্বীকৃতি জানিয়ে এসেছে তালিবান। কিন্তু এবার তালিবানের তরফে সোহেল শাহিন জানান, “বন্দি মুক্তির প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে ঈদুল আজহার পর আফগান সরকারের সঙ্গে তারা আলোচনায় বসার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছেন।” তবে তালিবান এমন সময় তাদের তালিকা ধরে বন্দি মুক্তির দাবি জানাচ্ছে যখন আফগান সরকার বলছে, আদালতে মামলা বিচারাধীন থাকায় এবং আদালত প্রদত্ত শাস্তির মেয়াদ শেষ না হওয়ায় তালিবানের দেয়া তালিকার প্রায় ৬০০ বন্দিকে মুক্তি দেয়া সম্ভব হবে না। কাজেই তালিবান যেন মুক্তির জন্য তাদের বন্দিদের নতুন তালিকা তৈরি করে।

তবে, তালিবানের সঙ্গে আমেরিকার স্বাক্ষরিত ব্যর্থ চুক্তিতে বলা হয়েছে, আফগান সরকার তালিবানের পাঁচ হাজার বন্দিকে এবং তালিবান আফগান সরকারের এক হাজার বন্দিকে মুক্তি দেয়ার পর দু’পক্ষের মধ্যে সরাসরি শান্তি আলোচনা শুরু হবে। কিন্তু, দুই পক্ষই সমঝোতা অনুযায়ী বন্দি মুক্তির কাজ সম্পন্ন করেননি। ফলে আফগানিস্তানে কয়েক দশকের সংঘর্ষ ও রক্তপাত অবসানে সরকারের সঙ্গে তালিবানের শান্তি আলোচনা শুরু করার প্রক্রিয়া এখনও থমকে রয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close