fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

দুই পাক গুপ্তচরকে ভারত ছাড়তে বলায় পাল্টা কৌশল পাক সরকারের, ভারতীয় কূটনীতিকে তলব ইসলামাবাদে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: সীমান্ত উত্তেজনার মধ্যেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে ফের শুরু হল কূটনৈতিক লড়াই। পাক হাইকমিশনের ভিসা বিভাগের দুই কর্মী আবিদ হুসেন ও তাহির খানকে রবিবার গুপ্তচরবৃত্তির কাজে হাতেনাতে ধরে ফেলে দিল্লি পুলিশ। তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ওই দু’জনকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। আর তার কিছুক্ষণের মধ্যেই পালটা কূটনৈতিক পদক্ষেপ গ্রহণ করে ইমরান খানের সরকার। সোমবার ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতের কূটনীতিককে ডেকে পাঠায় পাক বিদেশ মন্ত্রক।

জানা গিয়েছে, গুপ্তচরবৃত্তিতে অভিযুুুুক্ত ওই দু’জনকে গ্রেফতার ও পরে ভারত ছাড়তে বলার বিষয়ে পাকিস্তানের তরফে প্রতিবাদ নথিবদ্ধ করার জন্য ডেকে পাঠানো হয় ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে। পাক সরকারের দাবি, তাদের কর্মীদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলছে ভারত। আসলে ভারতে পাক হাইকমিশনের কাজ করার কূটনৈতিক পরিসরকে কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর সেটা করা মানে ভারত কূটনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে ভিয়েনা কনভেনশনের শর্ত লঙ্ঘন করছে।

আরও পড়ুন: পূর্বস্থলীর পঞ্চায়েতগুলির বিরুদ্ধে ব্যাপক অর্থনৈতিক দুর্নীতির অভিযোগ বিধায়কের

জানা গেছে, পাকিস্তান হাইকমিশনের অফিসে ভিসা অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করতেন অভিযুক্ত দু’জন। তারা ভিসা দেওয়ার আড়ালে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের হয়ে কাজ করত। সেই সূত্রেই রবিবার সকালে দিল্লির করোল বাগ এলাকায় এক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা করে ভারতীয় সেনা সংক্রান্ত কিছু নথি নেওয়ার চেষ্টা করে। আর ঠিক তখনই তাদের হাতেনাতে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ স্পেশ্লা সেলের সদস্যরা। প্রথমে রেহাই পাওয়ার জন্য নিজেদের ভারতীয় বলে দাবি করে। জাল আধার কার্ডও দেখায়। কিন্তু পুলিশের দীর্ঘ জেরার পর নিজেদের পরিচয় স্বীকার করে নেয় তারা। এই কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে আরও এক পাকিস্তানি নাগরিক জাভেদ হুসেনকেও আটক করে।

এ প্রসঙ্গে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়, একটি কূটনৈতিক কর্মকাণ্ডের সদস্য হবার পরেও অসামঞ্জস্যপূর্ণ কর্মকাণ্ডে যুক্ত ছিলেন দুই আধিকারিক আবিদ হুসেন ও তাহির খান। তাই সরকারের তরফে তাদের আস্থাহীন দূত ঘোষণা করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই দেশ ছেড়ে চলে যেতে বলেছে। পাশাপাশি প্রতিবাদ স্বরূপ পাকিস্তান দূতাবাসের আধিকারিককে এই বিষয়ে অভিযোগ জানিয়ে বলা হয়েছে, আগামিদিনে পাকিস্তান দূতাবাসের কোনও আধিকারিক বা কর্মী যেন নিজেদের কূটনৈতিক কাজের পরিসরের বাইরে গিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কাজকর্ম জড়িত না থাকে।

Related Articles

Back to top button
Close