fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পঞ্চায়েত সদস্যের শিশু পুত্রকে অপহরণ করে ৭ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি, চাঞ্চল্য গলসিতে 

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: সাত লক্ষ টাকা দিলে তবেই ফেরৎ পাবে ছেলেকে। আর পুলিশকে জানালে প্রাণে মেরে দেওয়া হবে ছেলেকে। পূর্ব বর্ধমানের গলসির সাঁকো গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যের শিশু পত্রকে অপহরণ করার পর ফোন করে এই ভাবেই মুক্তিপণ দাবি করলো অপহরণকারী। এই ঘটনায় গলির সাঁকো এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। শিশুর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে গলসি থানার পুলিশ অপহরণের ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার সাঁকো গ্রামে মনসা পুজো ছিল। ওইদিন বিকালে পঞ্চায়েত সদস্য বুদ্ধদেব দলুই এর ৯ বছর বয়সী শিশুপুত্র সন্দীপ পাড়ার মনসা মন্দিরে যায়। মা সান্ত্বনা দলুই বলেন, তাঁর ছেলে সন্দীপ স্থানীয় বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ে। বুধবার ছেলে মনসা মন্দিরে যাবার পর থেকেই তিনি ছেলের আরকোন খোঁজ পাচ্ছেন না। সন্ধ্যার পর থেকে গোটা পাড়ার সবাই মিলে সন্দীপের খোঁজা চালায়। কিন্তু এদিন পর্যন্ত সন্দীপের খোঁজ পাওয়া যায়নি।

সান্ত্বনাদেবী বলেন, বুধবার রাতে তাঁর স্বামী বুদ্ধদেব বাবুর মোবাইলে ফোন করে অরণকারী মুক্তিপণ দাবি করে। এই প্রসঙ্গে বুদ্ধদেব বাবু বলেন, তাঁকে ফোন করে প্রথমে ৭ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ চাওয়া হয়। পরে দ্বিতীয়বার ফোন করে তার কাছে ৭ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। একই সঙ্গে ফোনে হুমকি দিয়ে জানানো হয় ,‘মুক্তিপনের ব্যাপারে পুলিশ ও প্রতিবেশীদের কাউকে কিছু জানালে ওরা আমার ছেলেকে প্রাণে মেরে দেবে ।’ সন্দীপ দলুই বৃহস্পতিবার সবিস্তার এই ঘটনা গলসি থানায় জানিয়েছেন। অভিযোগ পাবার পরেই নড়ে চড়ে বসেছে গলসি থানার পুলিশ। তদন্ত নেমে পুলিশ হন্যে হয়ে অপহরণকারীর খোঁজ চালাচ্ছে ।

Related Articles

Back to top button
Close