fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শিলিগুড়িতে একই এলাকায় এক মাসে ৩ যুবকের রহস্য মৃত্যুতে আতঙ্ক

সঞ্জিত সেনগুপ্ত, শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি পুরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের এক যুবকের মৃত্যুতে রোগী ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগে এক নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামলো শহরের ক্রীড়াজগৎ। মঙ্গলবার শিলিগুড়ি মহকুমা ক্রীড়া পরিষদের একাধিক কর্মকর্তা সহ শহরের এক ঝাঁক খেলোয়াড় ওই নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে জমায়েত হন স্টেডিযাম চত্বরে।

 

 

শিলিগুড়ি পুরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডে সম্প্রতি একই ধরনের উপসর্গ নিয়ে কয়েকদিনের মধ্যেই তিনজন যুবক মারা যান। বুকে ব্যথা, শ্বাসকষ্ট সেই সঙ্গে রক্ত বমি। জয় মাহাতো নামে আম্বেদকর কলোনির ওই যুবকের এই উপসর্গ দেখা দেওয়ায় সকলেই ভেবেছিলেন করোনা সংক্রমণ হয়েছে। কিন্তুু তাঁর লালারস পরীক্ষা করে করোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। প্রবল শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ার পর তিনি পরিবারের সদস্যদের জানিয়েছিলেন তার কয়েকদিন আগেই ফুটবল খেলতে গিয়ে বুকে চোট লেগেছিল তার। এই অবস্থায় তাকে শহরের হিলকার্ট রোড এর একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যাওয়া হলে করোনার আতঙ্কে নার্সিংহোম তাকে ভর্তি নেয়নি বলে অভিযোগ পরিবারের। মৃত্যুর পর পরিবারের তরফে অজয় মাহাতো অভিযোগ করেছিলেন, পরপর কয়েকটি নার্সিংহোমে যোগাযোগ করেও জয় মাহাতোকে ভর্তি করানো যায়নি। শেষে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কিছুক্ষণ পরেই তার মৃত্যু হয়। তার লালারসের নমুনা পরীক্ষা করে করোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। শহরের কোনও একটি নার্সিংহোমে শুরুতেই চিকিৎসার সুযোগ পেলে জয় মাহাতো হয়তো বেঁচে যেতেন।’

 

 

এর কয়েক ঘণ্টা পর ওই এলাকারই ১৭ বছর বয়সের আর এক যুবক  একই উপসর্গ নিয়ে শহরের সেবক রোডের একটি নার্সিংহোমে মারা যায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জুন মাসের প্রথম সপ্তাহেও এই এক নম্বর ওয়ার্ডের এই এলাকারই আরও একজন যুবক একই উপসর্গ নিয়ে মারা গিয়েছে। পরপর এই মৃত্যুর ঘটনার পর এলাকায় আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। এখন এলাকায় ছেলেরা কেউ মাঠে নামছে না। এই পরিস্থিতিতে এলাকার নাগরিকদের একাংশ মনে করেন অবিলম্বে স্বাস্থ্য দপ্তরের উচিত এই তিন যুবকের মৃত্যুর প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করা। তিনজনের মৃত্যুর পাশাপাশি সম্প্রতি এলাকার আরও এক যুবক একই উপসর্গ নিয়ে শহরের প্রধান নগরের একটি নার্সিংহোমে ভর্তি রয়েছেন। কাজেই এই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা দরকার। করোনা আবহে খাদ্য সঙ্কটে টিবি বা অন্য কোনও রোগ মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে কি না সেটা জানা দরকার বলে মনে করেন নাগরিকরা। এর পাশাপাশি জয় মাহাতোকে  যে যে নার্সিংহোম তাকে ভর্তি নেয়নি তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইছেন এলাকার মানুষ।

Related Articles

Back to top button
Close