fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্য সরকারের চূড়ান্ত গাফিলতি, আমফানে তছনছ পানিহাটি শ্মশান ঘাট চেনা ছন্দে ফিরল না

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: গত মে মাসের ২০ তারিখে রাজ্যের বেশকিছু জেলায় তান্ডব চালায় আমফান সাইক্লোন, সেই ঝড়ে বাদ যায়নি উত্তর ২৪ পরগনা পানিহাটি শ্মশান ঘাট। শ্মশানের গ্যাস বেরানোর বড় পাইপটি ভেঙে যায়। ঠিক এরপর থেকেই দীর্ঘদিন পানিহাটি শ্মশান ঘাট বন্ধ হয়ে পড়ে। বন্ধ হয়ে যায় শব দাহের কাজ। আগস্ট মাস শেষ হতে চলল, কিন্তু এখনও পানিহাটি শ্মশান ঘাট চালু করতে পারল না পানিহাটি পৌরসভা। জানা যায় পানিহাটি আর সব শ্মশানের চেয়ে সবথেকে পুরনো শ্মশান ঘাট। ১৯৭৫ সালের ১১ই জুলাই প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছিল এই চুল্লিটি। তারপরে বামফ্রন্ট সরকার এর সময় দ্বিতীয় চুল্লিটি বসানোর কাজ শুরু হয়।

বামফ্রন্ট সরকার চলে গেলে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল সরকার। এরপর ওই শ্মশানটি দেখভালের দায়িত্ব পড়ে বর্তমান রাজ্য সরকারের। ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে দ্বিতীয় চুল্লিটি চালু হয়। কিন্তু পৌরসভার অপদার্থতার জন্য দীর্ঘদিন ধরে দুটো চুল্লি থাকা সত্ত্বেও কোনোটিই কাজ করছিল না।

[আরও পড়ুন- কাঁকসায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বালকের মৃত্যু]

শব দাহের চাপ পড়ছে কামারহাটি খড়দা টিটাগর শ্মশানের উপরে। বারাসাত, মধ্যমগ্রাম, নিউ ব্যারাকপুর, বিশরপাড়া, বিলকান্দা সহ বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ এই শ্মশানের ওপর নির্ভরশীল। আমফানের পর ভেঙে গিয়েছে শ্মশানের পাইপ। কিন্তু এখনও সারিয়ে তোলা হয়নি এই শ্মশান ঘাট। স্থানীয়দের অভিযোগ কাটমানি খাওয়া বা ঘুষ এর টাকা-পয়সা লেনদেনের জন্যই এখনও পর্যন্ত পানিহাটির এই শ্মশানটি চালু করতে পারল না পানিহাটি পৌরসভা। সব মিলিয়ে সাধারণ মানুষ দিন গুনছে কবে ফের শ্মশান ঘাটের পুনর্জন্ম হবে।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close