fbpx
দেশহেডলাইন

ইউক্রেন, চিন থেকে ফেরা ভারতীয় পড়ুয়াদের এদেশেই কোর্স শেষ করার বিষয়ে বিদেশ মন্ত্রক পদক্ষেপ সুপারিশ  সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেন থেকে দেশে ফের ডাক্তারি পড়ুয়াদের ভবিষ্যত কি হবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল। ইতিমধ্যে কেন্দ্রের তরফে সংসদে এক বিবৃতি পেশ করে দাবি করা হয়েছে, ২০ হাজার শিক্ষার্থী দেশে ফিরেছেন। এবার এদের ভবিষ্যত কি হবে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

সেই জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ইউক্রেন এবং চিন থেকে ফেরা ভারতীয় পড়ুয়ারা এদেশেই কোর্স শেষ করার বিষয়ে ব্যাপারে বিদেশ মন্ত্রক পদক্ষেপ সুপারিশ করল সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটি। সংসদীয় কমিটির তরফে বলা হয়েছে, বিদেশ মন্ত্রক যেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সঙ্গে আলোচনা করে কোর্সের মাঝপথে দেশে ফিরে আসা পড়ুয়াদের এদেশে ইন্টার্নশিপ অথবা তাদের কোর্স শেষ করার ব্যবস্থা করে দেয়। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্যকে চিঠি দিয়েছিলেন বিদেশ মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী ভি মুরলীধরণ। তবে চিঠির জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইঙ্গিত দেন এই ব্যবস্থা করা সরকারের পক্ষে অসম্ভব।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ইউক্রেন থেকে ফিরে আসা রাজ্যের পড়ুয়াদের রাজ্যেরই মেডিকেল কলেজগুলিতে কোর্স শেষ করা বা ইন্টার্নশিপ শেষ করার কথা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন থেকে পড়াশোনা শেষ না করে ফিরে আসায় ভারতীয় পড়ুয়ারা এ দেশেই তাঁদের ইন্টার্নশিপ শেষ করার সুযোগ পাবেন। তবে, তার আগে ফরেন মেডিক্যাল গ্র্যাজুয়েটস এন্ট্রান্স পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে, শনিবার এমনটাই জানিয়েছে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশন।

এ দেশের নিয়ম অনুযায়ী বিদেশে মেডিক্যাল পড়ুয়াদের দুটি ইন্টার্নশিপ করতে হয়। সংশ্লিষ্ট দেশে ইন্টার্নশিপ করার পরে ফের নিজের দেশে ইন্টার্নশিপ করতে হয়। কম খরচে মেডিক্যাল পড়ার সুবিধার জন্য ইউক্রেনে মেডিক্যাল পড়তে যান ভারতীয়রা।

ডেপুটি সেক্রেটারি শম্ভু শরণ কুমার জানান, “বিদেশে এমবিবিএস পাশ করা পড়ুয়াদের অসুবিধার কথা মাথায় রেখে ইন্টার্নশিপ শেষ করার জন্য তাঁদের আবেদন গ্রহণ করা হবে। পরীক্ষায় পাশ করলে  ইন্টার্নশিপ শেষ করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।”

উল্লেখ্য, ইউক্রেন-ফেরত ডাক্তারি পড়ুয়াদের ভারতের কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভরতি হয়ে পাঠ শেষ করার সুযোগ মেলার সম্ভাবনা আপাতত নেই। কেন্দ্রীয় সরকার জানায়, আইন অনুযায়ী, এমন কোনো সংস্থান তাদের হাতে নেই।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি, রাশিয়ার হামলার প্রেক্ষিতে ইউক্রেনে যুদ্ধ বেধে যায়। তার জেরে ইউক্রেনে কোর্স অসমাপ্ত রেখেই দেশে ফিরে আসতে হয় হাজার হাজার পড়ুয়াকে। তাঁদের মধ্যে বেশির ভাগই ডাক্তারি পড়ুয়া। পাঠ মাঝপথে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাঁরা ভবিষ্যৎ নিয়ে ব্যাপক দোলাচলে পড়েন তারা।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close