fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

১৪ দিনের জেল হেফাজতে পার্থ-অর্পিতা, নির্দেশ দিল ব্যাঙ্কশাল আদালত  

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: অবশেষে জেল হেফাজতে নেওয়া হল পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে। ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে দুজনকে। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামিনের আবেদন খারিজ করে আজ এই নির্দেশ শোনান আদালতের বিচারক। ১৮ আগস্ট তাদের দুজনকে ফের আদালতে তোলা হবে। দু সপ্তাহ ধরে জেলে থাকবেন পার্থ ও অর্পিতা। পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে প্রেসিডেন্সি ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে আলিপুর জেলে রাখা হয়েছে।

আদালতের নির্দেশ মতোই এ দিন জোকার ইএসআই হাসপাতালে রুটিন মাফিফ স্বাস্থ্যপরীক্ষা করাতে নিয়ে যাওয়া হয় পার্থ-অর্পিতাকে। ষড়যন্ত্র তত্ত্বে পার্থ এদিন কুলুপ আঁটলেও অর্পিতা সাংবাদিকদের সামনে জানান তিনি যা বলার ইডিকে জানিয়েছেন।

আদালতে ইডি জানায়, দু’জনকেই জেল হেফাজতে নিয়ে জেরা করতে চায়। ৫০টির উপর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে আদালতে জানায় তদন্তকারী সংস্থা। অন্য দিকে, জামিনের আবেদন জানান পার্থর আইনজীবী। তবে অর্পিতার তরফে জামিনের আবেদন জানানো হয়নি।

দিকে, অর্পিতা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে আদালতে জানান তাঁর আইনজীবী। জেলে থাকাকালীন সব ধরনের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের আইনজীবী আজও অর্পিতা জামিনের আবেদন জানাননি। তবে আইনজীবী জানিয়েছেন, অর্পিতা একজন উচ্চ শিক্ষিতা। তাকে ডিভিশন-১ প্রিজনারের পদমর্যাদা দেওয়া হোক। তার প্রাণহানির হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। জল, খাওয়ার যা দেওয়া হবে তা যেন আগে পরীক্ষা করে দেওয়া হবে।

ইডির আইনজীবীরা আদালতে জানিয়েছেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জেল হেফাজত চান। আইনজীবীরা জানিয়েছেন, পার্থ চট্টোপাধ্যায় তদন্তে কোনও সহযোগিতা করছেন না। তাই জেলে গিয়ে তারা পার্থকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই অর্পিতার বেলঘরিয়া ও টালিগঞ্জের আবাসন থেকে প্রায় ৫০ কোটি টাকা উদ্ধার করেছে ইডি। তবে এই টাকা তাঁর নয় বলে দাবি করেছেন অর্পিতা। পাশাপাশি, পার্থরও দাবি, এই টাকা তাঁর নয়। সময়ে সব ঘটনাই প্রকাশ্যে আসবে। এমনকি পার্থর দাবি, অর্পিতাকে তিনি চেনেন না। নাকতলায় পুজোর সময় অনেকে এসে থাকেন সেই রকম কেউ।

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close