fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কেন্দ্রের জনস্বার্থ বিরোধী নীতির প্রতিবাদে তৃণমূলের বিরোধিতা জারি থাকবে: পার্থ

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে ফের কেন্দ্রের বিরোধিতায় পথে নামতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। বুধবার এক সাংবাদিক বৈঠক করে এ কথা জানালেন দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা থেকে কর্মী ছাঁটাই করার যে পরিকল্পনা কেন্দ্র চালাচ্ছে তার বিরুদ্ধে সরব হবে তৃণমূল। এছাড়াও জি এস টি থেকে রাজ্যের পাওনা বাবদ অর্থ থেকেও বাংলাকে বঞ্চিত করা হচ্ছে বলেও তিনি আরো একবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সওয়াল করলেন। কেন্দ্রের এই জনস্বার্থ বিরোধী নীতির প্রতিবাদে এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে একগুচ্ছ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এদিন বলেন, ‘করোনা মহামারির সময়য়কালে একটার পর একটা জনস্বার্থ বিরোধী নীতি গ্রহণ করছে কেন্দ্র। কখনও  রাষ্ট্রায়ত্ত সম্পত্তি বেচে দেওয়া হচ্ছে আবার কখনও ব্যাপকহারে কর্মী ছাঁটাই করে দেয়া হচ্ছে। কেন্দ্রের এই নীতি কখনোই মেনে নেওয়া যাবে না তাই রাজ্যের প্রতিটি ব্লকে ব্লকে জেলায় জেলায় এই প্রতিবাদ সংগঠিত করে তুলতে হবে। তাই আগামী ২০  সেপ্টেম্বর চাকরি ছাটাই চলবে না এই স্লোগান ব্লকে ব্লকে প্রতিবাদ হবে।’
এ প্রসঙ্গে পার্থ চট্টোপাধ্যায় আরো বলেন, ‘রেল থেকে ভেল, এয়ারপোর্ট ডিফেন্স সবকিছুই বেসরকারি হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে। একের পর এক জাতীয় সম্পত্তি বিক্রির বিরুদ্ধে ,বেকারত্বের ,কর্মী সংকোচনের বিরুদ্ধে ,এয়ারপোর্ট বিক্রির বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ৪০ শতাংশ বেকারত্ব কমাতে পেরেছি আমাদের সরকার।জনস্বার্থ বিরোধী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে ২০ সেপ্টেম্বর ব্লকে ব্লকে মিটিং মিছিল প্রতিবাদ করবে।রাস্তাই আমাদের রাস্তা দেখাবে।’

এছাড়াও কেন্দ্র যেভাবে প্রতিনিয়ত জিএসটি বাবদ টাকা আটকে রেখে রাজ্যের উন্নয়নকে স্তব্ধ করে দিতে চাইছে তার বিরুদ্ধে এদিন প্রতিবাদে সরব হন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বহুবার কেন্দ্রের কাছে প্রাপ্য টাকা নিয়ে দরবার করেছে কিন্তু কেন্দ্র কখনোই সেই টাকায় রাজ্যের হাতে দেয় নি ফলে আমাদের কৃষি শিল্প শিক্ষা স্বাস্থ্য রাস্তাঘাট উন্নয়ন প্রকল্প আছে তা প্রায় স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে।’

পার্থ বলেন, ‘রাজ্যর উন্নয়নকে সচল রাখতে আমাদের টাকা দিতে হবে। ১৫ টি রাজ্য একসঙ্গে এই দাবী তুলেছে। নিয়ম কানুনের সময় রাজ্য ভাগীদার থাকলে প্রয়োগের সময় কেন না। রাজ্যর প্রাপ্য না পেলে উন্নয়ন প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করছে। তাই আগামী ১৪ ই সেপ্টেম্বর বাংলাকে বাংলার পাপ্য দিতেই হবে এই দাবিতে তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিবাদ করবে ব্লকে ব্লকে ওয়ার্ডে। আমার টাকা আমায় দাও এই দাবিতে সোচ্চার হবে।’

এদিন পার্থ বলেন, ‘সম্প্রতি ভারতের রাষ্ট্র নায়কের মৃত্যু হয়েছে। রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা হয়েছে। এ জন্য তৃণমূল কংগ্রেস সৌজন্য দেখাতে চায়। কিন্তু কেন্দ্রের বঞ্চনা আমরা কোন মতেই মানতে পারব না। বঞ্চনা ও লাঞ্চনার বিরুদ্ধে আগামী ৮  সেপ্টম্বর ব্লকে ব্লকে প্রচার ,মাঠে নেমে প্রতিবাদ মিছিল সভা সংগঠিত করব’।

Related Articles

Back to top button
Close