fbpx
কলকাতাশিক্ষা-কর্মজীবনহেডলাইন

পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যসুরক্ষা সঙ্কটের মুখে ঠেলে দিতে পারি না, রাজ্যপালকে পার্থ

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ে নিজের অবস্থানে অনড় থাকল রাজ্য সরকার। সোমবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর এর সঙ্গে দেখা করে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয় এমনটাই জানালেন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

 

 

তিনি বলেন, ‘আমরা কোনো অবস্থাতেই ছাত্রদের স্বাস্থ্যসুরক্ষা সংকটে ফেলতে চাইনা। তাই পরীক্ষার মূল্যায়ন হোক বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এর পুরনো সুপারিশ মেনে। ইতিমধ্যেই আমরা সেই সুপারিশ বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠিয়েছিলাম উপাচার্যরা সেগুলি নিয়ে আলোচনা করে নিজেদের মধ্যে পুনরায় আমাদের কাছে পাঠিয়ে ছিল। তার ভিত্তিতেই 80% ও কুড়ি শতাংশ পদ্ধতিতে পরীক্ষার মূল্যায়ন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দুঃখ মন্ত্রী যেখানে পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন সেখানে কোনো অবস্থাতেই ছাত্র-ছাত্রীদের সংকটময় পরিস্থিতির মুখোমুখি দাঁড় করাতে পারবো না। এই সমস্ত বিষয়ে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কেউ জানিয়েছি আপনার কাছেও জানালাম আপনিও বিষয়টি কেন্দ্রকে বোঝান।’

 

 

সাম্প্রতিক করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা বাতিল করার পক্ষে সরব হল দেশের ছয় রাজ্য৷ এই ছটি রাজ্য হল পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লি, পাঞ্জাব, মহারাষ্ট্র, ওডিশা এবং তামিলনাড়ু৷ অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা নেওয়া বাধ্যতামূলক৷ ছাত্রছাত্রীদের বিশ্বাসযোগ্যতা ও তাঁদের কেরিয়ারের জন্য অ্যাকাডেমিক মূল্যায়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ এর সঙ্গে কোনও রকম আপোশ করা সম্ভব নয়৷
গত সপ্তাহে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) তার সংশোধিত নির্দেশিকায় উচ্চশিক্ষা প্ৰতিষ্ঠানগুলিকে জানায়, এপ্রিলে প্রকাশিত নির্দেশিকা অনুযায়ী জুলাই মাসের বদলে ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা নেওয়া হবে সেপ্টেম্বর ২০২০-তে৷ তবে যে ভাবে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলেছে তাতে ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে সায় নেই ছয় রাজ্য সরকারের৷ প্রথমে ইউজিসি পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত রাজ্যের উপরে ছেড়েছিল। পরে তা সংশোধিত করে পরীক্ষা নেওয়া বাধ্যতামূলক করে৷ ইউজিসি’র এই নির্দিশিকাকে কেন্দ্র করেই নতুন করে কেন্দ্রের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছে রাজ্য সরকার৷

Related Articles

Back to top button
Close