fbpx
দেশহেডলাইন

এবার বেসরকারি হাতে প্যাসেঞ্জার ট্রেন! টেন্ডার ডাকছে রেল

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  প্যাসেঞ্জার ট্রেন চালানো নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিতে চলেছে রেল। সূত্রের খবর, এবার প্যাসেঞ্জার ট্রেন চালানোর দায়িত্ব বেসরকারি হাতে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে রেল মন্ত্রক। শিগগিরই ডাকা হতে চলেছে টেন্ডার। ১০৯ টি রুটে বেসরকারি সংস্থার সাহায্যে ট্রেন চালানো হতে পারে।

জানা গিয়েছে, দেশের সকল রেল ষ্টেশন গুলিকে ১২ ক্লাস্টারে ভাগ করা হয়েছে। এর মধ্যে হাওড়া ছাড়াও রয়েছে মুম্বই, পটনা, চণ্ডীগড়, চেন্নাই, প্রয়াগরাজ ও ব্যাঙ্গালোরের মতো ১২ টি ক্লাস্টার। এই ক্লাস্টারগুলির ১০৯টি স্টেশন থেকে বেসরকারি এই প্যাসেঞ্জার ট্রেনগুলো ছাড়বে। ট্রেন চালানোর জন্য বেসরকারি সংস্থাগুলি সরকারকে ভাড়া দিতে হবে। তবে ভারতীয় রেলের গার্ড ও চালকই এই ট্রেন চালাবেন। মোট ৩৫ বছরের জন্য এই চুক্তি করা হবে। তবে এই দীর্ঘ সময় ধরে বেসরকারি সংস্থাগুলি পরিষেবা, নিয়মানুবর্তিতা, স্বচ্ছতা, যাত্রী সুরক্ষার মতো বিষয়গুলি নিয়ে সরকারের বেঁধে দেওয়া নিয়মের মধ্যেই চলতে হবে। তবে এই ক্ষেত্রে সর্বোচ্চস্তরের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে হবে।

রেল মন্ত্রক সূত্রে খবর, বেসরকারি লগ্নি বাবদ ৩০ হাজার কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্য। তাই বেসরকারি সংস্থার কাছ থেকে যোগ্যতাপত্রের ভিত্তিতে টেন্ডার ডাকা হচ্ছে। আরও জানা গিয়েছে, ১০৯ টি রুটের জন্য দেড়শোর বেশি অত্যাধুনিক রেক আনা হবে। প্রতিটি রেকে ১৬টি করে কামরা থাকবে। ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৬০ কিলোমিটার বেগে ট্রেনগুলি চালানো যাবে। ট্রেনের চালক ও গার্ডদের দিয়েই ট্রেন চালাতে পারবে দায়িত্বপ্রাপ্ত বেসরকারি সংস্থা। রেল সূত্রে খবর, বেসরকারি লগ্নি টানার পাশাপাশি যাত্রী পরিষেবা আরও মসৃণ করার লক্ষ্যে এই সিদ্ধান্ত।

আরও পড়ুন: কোভিড মোকাবিলায় বিশেষ উদ্যোগ নিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক

তবে রেলের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন প্রাক্তন রেল প্রতিমন্ত্রী অধীররঞ্জন চৌধুরি। তাঁর মতে, পরিকল্পনাহীন একটি সিদ্ধান্ত এটি। এভাবে বেসরকারি সংস্থাকে দিয়ে প্যাসেঞ্জার ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত খুব একটা যুক্তিপূর্ণ নয় বলেই মনে করছেন তিনি। প্রায় একই বক্তব্য সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিমেরও। রেলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দ্রুতই টেন্ডার ডেকে গোটা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হতে পারে। যোগ্যতার ভিত্তিতে বেসরকারি সংস্থা বিভিন্ন রুটে প্যাসেঞ্জার ট্রেন চালানোর দায়িত্ব পাবে। তাহলে কি আনলক পর্যায়েই বেসরকারি সংস্থার হাত ধরে ছুটবে প্যাসেঞ্জার ট্রেন? এই প্রশ্নও উঠছে। ভাড়াও কি বাড়বে সেক্ষেত্রে? যাত্রীদের একাংশের মতে, ভাড়া বাড়লেও পরিষেবা তুলনায় ভাল মিলবে বলে আশা করছে তাঁরা।

Related Articles

Back to top button
Close