fbpx
কলকাতাহেডলাইন

অস্ত্রোপচার অনভিজ্ঞ চিকিৎসকের হাতে গলব্লাডার অপারেশনে প্রাণ হারালেন রোগী, নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে শুরু তদন্ত শুরু স্বাস্থ্য কমিশনের

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: সামান্য এমবিবিএস পাস ডাক্তারের হাতে পড়ে মর্মান্তিক পরিণতি হয়েছিল হাওড়া সালকিয়ার এক রোগীর। বেশ কিছুদিন আগে গলব্লাডার স্টোন নিয়ে হাওড়া সালকিয়ার নার্সিং হোমে ভর্তি হলেও অস্ত্রোপচারের পর রোগীর মৃত্যু হয়। চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশনের দ্বারস্থ হয় রোগীর পরিবার। বৃহস্পতিবার ছিল এই মামলার শুনানি। আর সেখানে নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষ জানাল, অভিযুক্ত ডাক্তার তাঁদেরও অপারেশন থিয়েটারের ভাড়া না দিয়েই পালিয়েছে। খোঁজ খবর না নিয়ে বাইরে চিকিৎসক রাজেন্দর কাছরুকে তাদের নার্সিংহোমে চিকিৎসা করতে দেওয়ায় নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য কমিশন।

সলকিয়ার বাবুডাঙা এলাকার ‘স্পেশ্যালিষ্ট কর্নার’ নামে ওই নার্সিংহোমের মালিক ডা. মদনমোহন ধারা এদিন স্বাস্থ্য কমিশনের শুনানিতে নিজের দোষ স্বীকার করে নিয়ে বলেন, “অভিযুক্ত চিকিৎসক ডা. রাজেন্দর কাছরু আদৌ সার্জারি জানতেন না। সমস্ত রোগীদের বারণ করা হত, ওঁকে দিয়ে অপারেশন যেন না করান। কিন্তু যেহেতু ডাক্তার সামান্য টাকার বিনিময়ে অপারেশন করতেন, তাই রোগীরা তাকে দিয়ে অপারেশন করাতেন।”

আরও পড়ুন: ৮ ঘণ্টাতেই জমি-বাড়ির ই-রেজিস্ট্রি, আয় বাড়াতে নয়া সিদ্ধান্ত নবান্নের

এদিকে নার্সিংহোম মালিকের এহেন মন্তব্যে মোটেই সন্তুষ্ট হয়নি স্বাস্থ্য কমিশন। কমিশনের চেয়ারম্যান অসীম বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “নার্সিংহোম মালিক যিনি কিনা নিজেও চিকিৎসক, তাঁর নার্সিংহোমে কীভাবে না জানিয়ে অপারেশন হয়? একজন রোগীর জীবন নিয়ে কিভাবে ছিনিমিনি খেলা চলছে! সকলের দায়িত্ব এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তো চলবে না। চিকিৎসকের যোগ্যতামান কেন বিচার করে নেয় নি কমিশন? ” আপাতত এই প্রশ্নে ইয়াসিন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উপযুক্ত উত্তর না পেলে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে।

Related Articles

Back to top button
Close