fbpx
কলকাতাহেডলাইন

শহরে দুই হাসপাতাল থেকে ফেরার দুই রোগী! বাড়ি থেকে ধরে এনে ফের হাসপাতালে ভর্তি পুলিশের

রোগীর দাবি হাসপাতাল থেকে ৫৪ কিলোমিটার দূরে অশোকনগরে তিনি হেঁটে বাড়ি ফিরেছেন।

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: শহরের দুই নামী সরকারি হাসপাতাল থেকে করোনা রোগী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়াল। সম্পূর্ণ হাসপাতালটিতে সিসিটিভি ক্যামেরা থাকলেও কিভাবে এই দুই রোগী পালিয়ে গেলেন, তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। দুটি ক্ষেত্রেই সরাসরি রোগীর বাড়িতে গিয়ে তাকে ফের ধরে এনে হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ।

এই ঘটনা দুটি ঘটেছে কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং এসএসকেএম হাসপাতালে। তার মধ্যে চাঞ্চল্যকর ঘটনা এসএসকেএম হাসপাতালের ঘটনাটি। হাসপাতালে সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পরেছে কম্বল  নিয়ে বেরিয়ে গিয়েছেন রোগী। রোগীর দাবি হাসপাতাল থেকে ৫৪ কিলোমিটার দূরে অশোকনগরে তিনি হেঁটে বাড়ি ফিরেছেন। অন্যদিকে কলকাতা মেডিকেল কলেজে করোনা আক্রান্ত মা এবং শিশু ভর্তি থাকলেও হাসপাতাল শিশুটিকে ছুটি দিলে কাউকে কিছু না জানিয়ে প্রগতি ময়দান এর বাড়িতে শিশুসহ ফিরে আসেন মা। বউবাজার থানার পুলিশ খবর পেয়ে তাকেও ফের হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছে।

জানা গিয়েছে, দুটি ঘটনাই ঘটেছে সোমবার বিকালে। কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ১০ দিন আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে সদ্যোজাত সন্তানকে নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন ওই মহিলা। নিয়মানুযায়ী রিপোর্ট পাওয়ার ১০ দিনের মাথায় কোনও উপসর্গ না থাকলে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয় রোগীকে। সেই অনুযায়ী, সোমবার সদ্যোজাতের ছুটির কথা বলা হয়। কারণ, তার কোনওরকম অসুস্থতা বা উপসর্গ ছিল না। কিন্তু মায়ের ছুটি ঘোষণা করা হয়নি। কিন্তু বাচ্চার ছুটি হওয়ার পর সেই কাগজ হাতে নিয়েই ওই মহিলা হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে সোজা বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন।

এদিকে সোমবার বিকালে ইডেন বিল্ডিংয়ে চিকিৎসকরা করোনা আক্রান্ত মায়ের চিকিৎসা করতে গিয়ে দেখেন মা ও শিশুর কেউই বেডে নেই। সন্ধান না পেয়ে তড়িঘড়ি পুলিশকে খবর দেয় কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। শেষমেশ ঘণ্টা খানেক পুলিশের দৌঁড়ঝাপের পর রাতের দিকে প্রগতি ময়দান থানা এলাকার ওই প্রসূতির বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় ওই করোনায় আক্রান্ত মহিলা এবং তাঁর সন্তানকে। রাত ৮ টায় ফের সেখান থেকে সন্তান-সহ তাঁকে নিয়ে আসা হয় কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। শিশু ছুটি পাওয়ায় তিনি নিজেও ছুটি পেয়েছেন ভেবে চলে গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন ওই করোনা আক্রান্ত মা।

অন্যদিকে এস এস কে এম হাসপাতলে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া ব্যক্তি ভোলানাথ সরকার দিন তিনেক আগে গাড়ি দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত হন। মাথায় গুরুতর চোট পান তিনি। ভর্তি ছিলেন এসএসকেএম হাসপাতালের ট্রমা কেয়ার বিভাগে। সোমবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ তিনি হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ হয়ে যান। সিসিটিভিতে দেখা যায়, সোমবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ হাতে একটি কম্বল এবং সিরিঞ্জ নিয়ে তিনি বেড়িয়ে আসছেন হাসপাতাল থেকে। তারপর থেকে তাঁর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। শেষে সোমবার রাত সাড়ে ন’টা নাগাদ উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বারাসত সদত মহকুমার অশোকনগরের কল্যাণগড়ের তাঁর বাড়িতে পায়ে হেঁটেই পৌঁছে যান তিনি। যদিও সত্যিই তিনি পায়ে হেঁটে গিয়ে ছিলেন কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তাকেও ফের ধরে এনে হাসপাতালে ভর্তি করায় পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close