fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শীলভদ্র দত্তের মান ভঞ্জনে ব্যর্থ পিকের টিম 

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: এখনো নিজের অবস্থানেই অনড় রয়েছেন উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুরের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত । শীলভদ্র বাবু আগেই প্রকাশ্যে ঘোষণা করে দিয়েছেন, তিনি তৃণমূল কংগ্রেস দলের টিকিটে কোনভাবেই আর আসন্ন ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে লড়বেন না । দলের বিরুদ্ধে বেসুরো হওয়ায় ব্যারাকপুরে দল অস্বস্তিতে পড়েছে । সেই কারনে ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্তের মানভঞ্জনের চেষ্টায় মঙ্গলবার দুপুরে পিকের টিমের ২ সদস্য শীল ভদ্র দত্তের সঙ্গে দেখা করেন তার সমস্যার কথা জানতে চান । তবে শীলভদ্র দত্ত খুব বেশি কথা বলেন নি পিকের টিমের সদস্যদের সঙ্গে । ফলে শীল ভদ্র দত্ত তার নিজের পুরনো অবস্থানেই অনড় থাকেন । জানিয়ে দেন, তিনি ২০২১ নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে ভোটে দাঁড়াবেন না।
দলের শীর্ষ নেতাদের এবং ব্যারাকপুরের স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের একাংশের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ রয়েছে তার । পিকের টিমের খবরদারি কিছুতেই পছন্দ নয় ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্তের । এই পরিস্থিতিতে বেসুরো শীলভদ্র দত্ত কি বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন ? ভোটের আগেই কি তৃণমূল দল ছাড়তে পারেন শীলভদ্র দত্ত ? জল্পনা তুঙ্গে ব্যারাকপুরের রাজনৈতিক মহলে । আবার শুভেন্দু অধিকারী র বিভিন্ন পদক্ষেপকে প্রশংসা করেছেন তৃণমূলের এই বেসুরো বিধায়ক । এই পরিস্থিতিতে ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্তের  মানভঞ্জনে পিকের টিম মঙ্গলবার দুপুরে শীলভদ্র দত্তের ব্যারাকপুরের অফিসে এসে বৈঠক করলেন তার সঙ্গে । যদিও সেই বৈঠক ব্যর্থ হয়েছে বলে খবর । মাত্র কিছুক্ষণ এই বৈঠিক চলে । পিকের টিমের ২ সদস্য মঙ্গলবার দুপুরে বিধায়ক শীল ভদ্র দত্তের ব্যারাকপুরের অফিসে আসেন তার সঙ্গে কথা বলতে । সেই সময় নিজের অফিসেই ছিলেন শীল ভদ্র বাবু ।
পিকের টিমের ২ সদস্য শীল ভদ্র দত্তের অফিসে ঢুকে তার সমস্যার কারন জানতে চাইলে শীল ভদ্র দত্ত জানিয়ে দেন তিনি আসন্ন নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে কোনভাবেই লড়াই করবেন না, দল যোগ্য বিকল্প প্রার্থী যেন খুঁজে নেয় । তবে বেশিক্ষণ কথা হয়নি পিকের টিমের সদস্যদের সঙ্গে । বৈঠক শেষে পিকের টিমের সদস্যরা চলে যান । এই বৈঠকের শেষে ব্যারাকপুরের বিধায়ক শিলভদ্র দত্ত সাংবাদিকদের বলেন, “যে সিদ্ধান্ত আমি একবার নিয়ে ফেলেছি, তা থেকে সরে আসার প্রশ্ন নেই । আমি প্রকাশ্যে আগেই জানিয়ে দিয়েছি, ২০২১ নির্বাচনের জন্য দল যেন ব্যারাকপুর বিধানসভা কেন্দ্রের জন্য বিকল্প যোগ্য প্রার্থী খুঁজে নেয় । পিকের টিম তাদের কাজে এসেছিল । ওদের সঙ্গে অসহযোগিতা করিনি । তবে দলের কাজ দলের নেতা কর্মীরা করলেই ভালো হয় বলে আমি মনে করি ।”
তিনি আরো জানান, দলের একাংশ যেভাবে বেসুরোদের বিরুদ্ধে কথা বলছে তাতে মনে হচ্ছে তৃণমূলের একাংশ চাইছে বেসুরো যারা গাইছে তারা দল থেকে দ্রুত চলে যাক । সম্প্রতি দমদম কেন্দ্রের সাংসদ সৌগত রায় শীলভদ্র দত্তের সম্পর্কে বলেছিলেন, ব্যারাকপুরের বিধায়ক অসুস্থ । খুব বেশি দৌড় ঝাঁপ করতে অসুবিধা উনার । এই প্রসঙ্গে শীল ভদ্র দত্ত বলেন, “সৌগত রায় যা বলেছেন তার জন্য উনার উপর আমার রাগ নেই । উনি অনেক অভিজ্ঞ, পণ্ডিত মানুষ । তবে আমি আসন্ন নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে ভোটে লড়ছি না ।”

Related Articles

Back to top button
Close