fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মানুষ শাসক দলের দুর্নীতি বুঝতে পেরেছে, তাই বিজেপির সঙ্গে আছে: অরবিন্দ মেনন

মিল্টন পাল, মালদা: যুব মোর্চার নবান্ন ঘেরাওয়ের দিন বলবিন্দর সিং এর সাথে যে ঘটনা ঘটেছে, তার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর প্রকাশ্যে এসে ক্ষমা চাওয়া উচিত। মালদায় দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে এসে একথা বলেন বিজেপি নেতা অরবিন্দ মেনন। এদিন মালদা ও দুই দিনাজপুরের জেলা নেতৃত্বদের নিয়ে মালদা শহরে বিজেপি কার্যালয়ে বৈঠক করেন তিনি।

জানা গিয়েছে, বুধবার ছিল দলীয় কর্মসূচিতে মালদায় আসেন অরবিন্দ মেনন। যত বিধানসভা ভোট এগিয়ে আসছে ততই বিজেপির শক্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে রাজ্য তথা দেশে। মালদা জেলার ১২টি বিধানসভা রয়েছে। গত বিধানসভা ভোটে ১০টি আসনে জয়লাভ করে কংগ্রেস। একটিতে নির্দল ও একটিতে সিপিএম জয় লাভ করে। পরবর্তীতে উপনির্বাচনে হবিবপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি জয়লাভ করে বিজেপি।

২০১৯সালের লোকসভা ভোটে উত্তর মালদা কেন্দ্রে জয়লাভ করে বিজেপির খগেন মুর্মু ও দক্ষিন মালদা কেন্দ্রে জয়লাভ করে কংগ্রেসের আবু হাসেম খান চৌধুরী। এরপর থেকে দক্ষিন মালদা কেন্দ্রে বিজেপি জয়লাভ না করলেও বিজেপি প্রবনতা বৃদ্ধি পায়। অন্যদিকে ছোটো ছোটো উইঙ্গস সাজিয়ে একদম নীচুস্তরে নেমে প্রচার শুরু করে মালদা জেলা বিজেপির শাখা সংগঠন। সম্প্রতি কৃষিবিলের সমর্থনে মণ্ডল ধরে কৃষকদের বিল সম্বন্ধে আলোচনায় সাফল্য পেতে শুরু করেছে জেলা বিজেপি।

বর্তমানে জেলায় শাসকের দুর্নীতি নিয়ে সরব হয়েছে বিজেপি। মানুষ শাসক দলের দুর্নীতি বুঝতে পেরেছে তাই মানুষ বিজেপির সঙ্গে আছে।  বিজেপি নেতা এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, এই রাজ্যে শাসকদলের পিসি আর ভাইপো ছাড়া কেউই ভালো অবস্থায় নেই। আমরা বুথে বুথে কর্মী সম্মেলন করছি। পুজোর পর থেকে জোর আন্দোলন হবে। এই রাজ্যের মানুষ বলছে তৃণমূল যাচ্ছে বিজেপি আসছে। এটাই এখন মানুষের মুখে স্লোগান। বিজেপি বাংলার মানুষের মনে ঢুকে গিয়েছে। এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা।

Related Articles

Back to top button
Close