fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

অনড় মনোভাব! উঁচু এলাকা দখলের চেষ্টায় দুপক্ষই, সীমিত যুদ্ধের পথে ভারত-চিন?

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আবহে ভারত চিন দু’পক্ষের কেউই যুদ্ধ চায় না।‌ কূটনৈতিক জবানবন্দীতে একথা বললেও বাস্তব চিত্রটা একেবারে আলাদা।‌ গত ৫ মাস ধরে চলা সংঘাতে লিপ্ত দু’দেশের ‌সেনা। লাদাখের পাংগং লেকের দক্ষিনাংশ এখন ভারতের দখলে। উত্তর দিকে চিনা সেনার তৎপরতা লক্ষনীয়। তেমনই উত্তর অংশকে রক্ষা করতে তৎপর হয়েছে ভারতীয় সেনাও। এমন অবস্থায় সম্পূর্ণ যুদ্ধে না গেলেও ছোটখাটো সীমিত সময়ের যুদ্ধ বা লিমিটেড ওয়ারে যেতে পারে দু’দেশ। কোন ধরনের মিস অ্যাডভেঞ্চার সেই সম্ভাবনাকে ত্বরান্বিত করবে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

বৃহস্পতিবারও মস্কোয় দু’ দেশের বিদেশমন্ত্রীর মধ্যে যে বৈঠক হয়েছে, তাতে সে অর্থে কোনও বের হয়নি কোনও সমাধান সূত্র৷ বৈঠকের সারমর্ম এটুকুই যে দুই দেশই আরও আলোচনা চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে সম্মত হয়েছে৷ গত কয়েক মাসের পরিপ্রেক্ষিতে যা নতুন কিছু নয়৷

বৃহস্পতিবারের আলোচনার পরেও সীমান্তে বাস্তব পরিস্থিতির বিশেষ বদল ঘটেনি৷ উল্টে লাদাখে চিন আরও বেশি সংখ্যক সেনা মোতায়েন করছে বলে খবর৷ জানা গিয়েছে, প্যাংগং লেকের উত্তর প্রান্তে ফিঙ্গার থ্রি এলাকা দখলের জন্য সেনা জমায়েত করতে শুরু করেছে পিপলস লিবারেশন আর্মি৷

গত কয়েকদিনে ফিঙ্গার এলাকায় কৌশলগত ভাবে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পাহাড়চূড়ো এবং উঁচু অংশের দখল নিয়ে নিয়েছে ভারতীয় সেনা৷ এবার একই চেষ্টা শুরু করেছে চিনা বাহিনী৷ ফলে যতই দু’ দেশের মধ্যে কূটনৈতিক বৈঠক চলুক, বাস্তবে ফাঁকা পাহাড় চূড়ো এবং কৌশলগত ভাবে সুবিধেজনক উঁচু এলাকাগুলি দখলের জন্য মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে দুই দেশের সেনা৷

আপাতত তাই লাদাখে পরিস্থিতি সরু সুতোর উপরে ঝুলছে৷ দুই দেশ মুখে দাবি করছে তারা যুদ্ধ চায় না৷ কিন্তু উত্তেজনা প্রশমনের জন্য প্রথম পদক্ষেপটিও নিতে চাইছে না কেউ৷

Related Articles

Back to top button
Close