fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

‘‌সঠিক পথে চলছি, ঐক্যবদ্ধভাবে করোনা রুখব’‌, মুখ্যমন্ত্রীদের বললেন মোদি

আক্রান্তের পরিবারের পরীক্ষা করাতে হবে ৭২ ঘণ্টায়

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রোজই নতুন করে সংক্রমিতের সংখ্যা পঞ্চাশ হাজারের গণ্ডি ছাডা়চ্ছে। দেশজুড়ে করোনাভাইরাসের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে ১০ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক বসেছেন মোদি। ভিডিয়ো কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়েছে বৈঠক। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত আছেন পশ্চিমবঙ্গ, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব, বিহার, গুজরাত, তেলেঙ্গানা ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীরা। দেশে মোট করোনা আক্রান্তের ৮০ শতাংশই রয়েছে ১০টি রাজ্যে। সেই রাজ্যগুলো হল মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, পশ্চিমবঙ্গ, পাঞ্জাব, বিহার, তামিলনাড়ু, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট, তেলঙ্গানা। এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠকে বসলেন মোদি। বললেন, মৃত্যুর হার এই প্রথম কমেছে দেশে। সেই নিয়ে বৈঠকে সন্তোষ প্রকাশ করলেন। প্রধানমন্ত্রী এও বললেন, ‘‌করোনা মোকাবিলায় আমরা সঠিক পথে চলছি। ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা করোনা রুখে দেব।’

পরিসংখ্যানই সাফল্যের ইঙ্গিত দিচ্ছে, তাই মঙ্গলবারের বৈঠকের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রীর অভিব্যক্তিতে অনেকটাই চনমনে ভাব। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ উঠে আসে প্রধানমন্ত্রীর মুখে। এদিন প্রধানমন্ত্রীর মূল বার্তা ছিল অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে সবাই মিলে কাজ করা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১০ টি রাজ্যেই দেশের করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে আশি শতাংশ। যদি ১০ টি রাজ্যে করোনা সামাল দেওয়া যায় তবে অচিরেই করোনামুক্ত হবে দেশ। প্রধানমন্ত্রীর এদিনের নিদান, একজন করোন আক্রান্ত হওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর পরিবারের অন্যান্যদের করোনা পরীক্ষা করাতে হবে।”তাঁর কথায়, কোনও আক্রান্ত শনাক্ত হলে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর সংস্পর্শে এসেছেন এমন ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে পরীক্ষা করতে হবে। কনটেনমেন্ট জোনগুলিকে সম্পূর্ণ আলাদা রাখতে হবে। দিল্লিতে নির্দিষ্ট রোডম্যাপ মেনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। বিহার, বাংলা, গুজরাট, তেলঙ্গানায় করোনা পরীক্ষা বাড়াতে হবে।

তিনি তুলনা টেনে আনেন রাজধানীর। বলেন, “এক সময়ে দিল্লি, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশে লাগামছাড়া হয়ে গিয়েছিল করোনা পরিস্থিত। আমরা সেই পরিস্থিতি সামাল দিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি কমিটি তৈরি করি। সেই কমিটি লাগাতার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেছে। এখন তার সুফল আমরা পাচ্ছি।”‌কিন্তু আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করে পরিস্থিতি সামাল দিতে সক্ষম হয়েছি। যে ফলের আশা আমরা করেছিলাম তা পেয়েছি।

আরও পড়ুন: করোনার বিরুদ্ধেও পথ দেখাল ‘রুশ বিপ্লব’, প্রথম ভ্যাকসিনের প্রয়োগ হল পুতিনকন্যা ক্যাটরিনার দেহে

”দেশে প্রতিদিন ৭ লক্ষ করোনা টেস্ট হচ্ছে বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরীক্ষার সংখ্যা আরও বাড়িয়ে তোলা হবে।তবে প্রধানমন্ত্রী আশ্বাস দিলেও বাস্তবে পরিস্থিতি যে খুব একটা ভাল নয় তা সাফ জানিয়ে দিচ্ছে পরিসংখ্যান। বিগত দু’দিনে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষেরও বেশি মানুষ। টেস্ট বাড়ায় সঙ্গতি দিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। কিন্তু অধিকাংশ রাজ্যে চিকিৎসা পরিকাঠামো পরিস্থিতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে পরিষেবা প্রদান করতে পারছে না। হাসপাতালে আসনের অভাব ও অপর্যাপ্ত অ্যাম্বুল্যান্স সবচেয়ে বেশি চিন্তা বাড়িয়েছে। এছাড়া, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলিও যে ‘বিশ্ব মানের’ তা বলা বাতুলতা।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক মঙ্গলবার সকালে জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ হাজার ৬০১ জন। এখন মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২ লক্ষ ৬৮ হাজার ৬৭৫। দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৮৭১। এখন পর্যন্ত দেশে করোনায় মারা গেছেন ৪৫ হাজার ২৫৭ জন। মোট আক্রান্তের নিরিখে দুনিয়ায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। আমেরিকা এবং ব্রাজিলের পরেই।

 

Related Articles

Back to top button
Close