fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

হ্যাক হল নরেন্দ্র মোদির ওয়েবসাইটের টুইটার অ্যাকাউন্ট

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হল। একই সঙ্গে হ্যাকাররা হানা দিয়েছে নরেন্দ্র মোদি মোবাইল অ্যাপেও। বৃহস্পতিবার ভোর ৩টে ১৫ নাগাদ হ্যাক করা হয়। এই খবর নিশ্চিত করেছে টুইটার। মোদির ওয়েবসাইটের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টের ফলোয়ার সংখ্যা ২৫ লক্ষ।   মোদির নিজস্ব ওয়েবসাইটের যে টুইটার অ্যাকাউন্ট সেখান থেকে কোভিড-১৯ ত্রাণ তহবিলের জন্য অনুদানের ক্ষেত্রে ক্রিপ্টো কারেন্সি ব্যবহার করার নামে একাধিক টুইট করা হয়।

হ্যাক করার পরে ওই ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে ট্যুইট করা হয়েছে, ‘হ্যাঁ, অ্যাকাউন্টটি জন উইকের দ্বারা হ্যাক করা হয়েছে। আমরা Paytm মল হ্যাক করিনি।’ একাধিক ট্যুইট করেছে হ্যাকাররা। ফলোয়ারদেরকে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিলে ক্রিপ্টোকারেন্সির মাধ্যমে দান করতে। আরেকটি ট্যুইটে বলা হয়েছে, ‘আমি আপনাদের কাছে আবেদন জানাচ্ছি, প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ তহবিলে ক্রিপ্টোকারেন্সির মাধ্যমে দান করুন।’ ট্যুইটারের তরফে জানানো হয়েছে, তারা এই ঘটনাটির ব্যাপারে অবহিত। অ্যাকাউন্টটি সুরক্ষিত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করছে। ঘটনার তদন্তও শুরু করা হয়েছে।

প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্টে এমন সব টুইট দেখে অনেকেই চমকে যান। তারপরই বুঝে যান প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপের অ্যাকাউন্টটি হ্যাক করা হয়েছে। কিছুক্ষণের মধ্যেই অ্যাকাউন্ট পুনরুদ্ধার করা হয়। হ্যাকারদের করা টুইট গুলি মুছে দেওয়া হয়। টুইটারের তরফে জানান হয়েছে যে তাঁরা এই ধরনের কার্যকলাপ নিয়ে যথেষ্ট সচেতন এবং অ্যাকাউন্টিকে সুরক্ষিত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে। ইমেলের মাধ্যমে একটি বিবৃতিতে টুইটারের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘আমরা গভীর ভাবে এই ঘটনার তদন্ত করছি। প্রধানমন্ত্রীর অতিরিক্ত যে অ্যাকাউন্ট প্রভাবিত হয়েছে সে সম্পর্কে সচেতন ছিলাম না।’

আরও পড়ুন: শেখ হাসিনার সরকার আধিপত্যবাদের পুতুল সরকারে পরিণত হয়েছে: মির্জা

এর আগে গত ১৬ জুলাই বিল গেটস, বারাক ওবামা, জো বাইডেন, এলন মাস্ক, ওয়ারেন বাফেট, জেফ বেজস, কিম কারদাশিয়ান-সহ বিশ্বের তাবড় ব্যক্তিত্বদের রাতারাতি ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ফেলে হ্যাকাররা। প্রত্যেকের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকেই ক্রিপ্টোকারেন্সির বিটকয়েন সম্পর্কিত স্ক্যাম ট্যুইট করা হয়। ট্যুইটারের সিইও জ্যাক ডর্সি বলেন, ‘ট্যুইটারের কাছে, আমাদের কাছে, এটি একটি কঠিন দিন।’

 

 

Related Articles

Back to top button
Close