fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

৭৪তম স্বাধীনতা দিবসে বিজেপি নেতা-কর্মীদের ওপর লাঠি চালানোর অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

অভিষেক আচার্য, কল্যাণী: ৭৪তম স্বাধীনতা দিবসে গেরুয়া শিবিরের এক বাইক মিছিলে লাঠিচার্জ করার অভিযোগ উঠল নদীয়ার কল্যাণী থানার পুলিশের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে, নদীয়ার কল্যানীর সেন্ট্রাল পার্ক এলাকায়। এদিন কল্যাণীর বিভিন্ন জায়গায় স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বিজেপি কয়েকটি ভাগে বিভক্ত হয়ে বাইক মিছিল বের করে। তার মধ্যে একটি মিছিল আই টি আই মোড় হয়ে সেন্ট্রাল পার্কের দিকে আসছিল। সেই সময় কল্যাণী থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী তাঁদের পথ আটকায়। এবং তাঁদের ওপর লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় তিনজন বিজেপি কর্মীকে পুলিশ আটক করে। পরে অবশ্য তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

এই বিষয়ে বিজেপির তরফ থেকে কল্যাণী শহর মন্ডল সভাপতি বিশ্বরূপ কুলভি বলেন, “স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় পতাকা নিয়ে মিছিল বের করে দল। সেন্ট্রাল পার্কের কাছে আমাদের বাইক মিছিল পৌঁছলে পুলিশ পথ আটকায়। এবং বেধড়ক লাঠিচার্জ করে। পুলিশের লাঠির আঘাতে আমাদের তিনজন বিজেপি কর্মী ও নেতা গুরুতরভাবে জখম হন। ওই তিনজনকে গ্রেফতারও করা হয়।”
তিনি আরও বলেন, “পুলিশের কাছে আমরা মৌখিক ভাবে জানিয়েছিলাম যে, আজ আমাদের বাইক মিছিল বের হবে। তা সত্ত্বেও পুলিশ আমাদের নেতা,কর্মীদের ওপর নির্মমভাবে লাঠিচার্জ করে। লাঠির আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছেন, কল্যাণী শহর মন্ডলের যুব সভাপতি শ্রীনিবাস মন্ডল, কল্যাণী শহর মন্ডলের যুব সহ-সভাপতি অমিত সিং ও কর্মী গৌতম মহারানা।”

আরও পড়ুন: পুরো ইউনিফর্মেই জওয়ানরা জাতীয় পতাকাকে সম্মান দেয়, তৃণমূলের সমালোচনার জবাবে তোপ দিলীপের

শুধু তাই নয়, শাসক দলের মদতেই পুলিশ এই লাঠি চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিশ্বরূপবাবু। তিনি প্রশ্ন তোলেন, তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরাও বাইক মিছিল বের করে তাঁদের ওপর পুলিশ কেন লাঠি চালায়নি? এই বিষয়ে শাসক দলের পক্ষ থেকে কল্যাণী শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অরূপ মুখোপাধ্যায় বলেন,”পুলিশ আমাদের বাইক মিছিলেও লাঠি চালিয়েছে। কেন পুলিশ লাঠি চালিয়েছে সেই বিষয়ে প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলবো।” যদিও পুলিশের তরফ থেকে এই বিষয়ে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
স্বাধীনতা দিবসে রাজনৈতিক দলগুলির ওপর পুলিশের নির্মমভাবে এই লাঠি চালানোর ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন কল্যানীর এলাকাবাসীরা।

Related Articles

Back to top button
Close