fbpx
কলকাতাহেডলাইন

গানের খাতা দেখে উল্টোডাঙার ডালকল শ্রমিকের খুনিকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার পুলিশের

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: বন্ধ কারখানার ভেতরে শ্রমিকের দেহ উদ্ধার হওয়ায় প্রথমে কোন সূত্রই পাচ্দন্তকারী আধিকারিকরা। তবে ওই শ্রমিক কে যে খুন হতে হয়েছে, সে বিষয়ে তারা একপ্রকার নিশ্চিত ছিলেন। একদিকে ডালকলের কারখানার দেওয়ালে হিন্দি ভাষায় হুঁশিয়ারি এবং ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হওয়া একটি গানের খাতা, দুইয়ে মিলে শেষ পর্যন্ত খুন হওয়া শ্রমিক রাহুল সাউয়ের খুনিকে গ্রেফতার করতে পারল ফুলবাগান থানার পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, খুনির নাম শাকিল খান। তাঁকে দেশবন্ধু পার্ক এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে নিজেও ওই কারখানার কর্মী।

প্রসঙ্গত, বুধবার উল্টোডাঙার গোরাপদ সরকার লেনের একটি ডালকলের ভিতরে রাকেশ সাউ নামে বছর তিরিশের এক যুবকের ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার হয়। পরে পুলিশ জানতে পারে, রাতে ওই গুদামেই ঘুমাতেন রাকেশ। ঘটনার দিন রাতেও তিনি মালিক পরেশ সাউয়ের কাছ থেকে গুদামের চাবি নিয়ে গিয়েছিলেন। যদিও সকালে পরেশবাবু সেখানে পৌঁছে দেখেন, রাকেশের দেহ পড়ে রয়েছে। তিনিই পুলিশে খবর দিলে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়।

তদন্তকারীদের দাবি, এই ঘটনার তদন্তে দুটো বিষয় তাদের খুবই সাহায্য করেছে। একদিকে আততায়ী হিন্দি ভাষায় দেওয়ালে লিখে গিয়েছিল, “সিআইডি রাজ সাবধান, আগর জাদা চালাকি করোগে, তো খুদ হি ফাঁস যাওগে…।” সেই সঙ্গে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছিল একটি গানের খাতাও। দেওয়াল লিখনের সঙ্গে খাতার হাতের লেখা মিলিয়ে দেখা হয়। জানা যায়, দুটি লেখা একজনেরই।

আরও পড়ুন: ভাড়া বৃদ্ধি, জ্বালানি তেলের দাম কমানোর দাবিতে সেপ্টেম্বরের থেকে আমরণ অনশনের হুমকি বাসমালিকদেরমকি বাসমালিকদের

মৃত যুবকের পরিচিতদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে করতে একজনের কাছ থেকে জানা যায়, মৃতের এক পরিচিত শাকিল খানের গান লেখার শখ আছে। কিন্তু ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল বীরভূমের বাসিন্দা শাকিল। শেষ পর্যন্ত দেশবন্ধু পার্কের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। শাকিল খুনের ঘটনার কথা স্বীকার করলেও খুনের উদ্দেশ্য নিয়ে এখনও নিশ্চিত নয় পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close