fbpx
পশ্চিমবঙ্গ

মেয়ে সুদূর ভাইজাকে, পুলিশ পালন করল বৃদ্ধা মায়ের জন্মদিন

সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সাঁইথিয়া : বৃদ্ধার কাছে এই ঘটনা যেন অনেকটা ছিল গল্পের রুপকথার মতো। সকালবেলা পুলিশ এসে বাড়িতে কড়া নাড়তে হকচকিয়ে যান মহুগ্রামে সত্তোরোর্ধ বৃদ্ধা ইভা ভট্টাচার্য । যখন জানতে পারলেন যে আজ তাঁর জন্মদিন পালন করা হবে পুলিশ প্রসাশনের পক্ষ থেকে তখন কিছুক্ষন আবেগমথিত হয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে যান।

প্রতিবছর এই দিনটিতে মেয়ে পাপিয়াদেবী সুদুর ভাইজাগ থেকে ইন্ডিয়ান নেভিতে কর্মরত স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে লাভপুর থানার অন্তর্গত মহুগ্রামে হাজির হয়ে মায়ের জন্মদিন পালন করেন। কোন বছরই ব্যতিক্রম হয়না এর। কিন্তু এবছর লকডাউনের কারনে ভাইজাগ থেকে মহুগ্রামে পৌছানোর কোন উপায়ই ছিল না, ট্রেন বাস উড়োজাহাজ সবই বন্ধ থাকার কারনে। এমনিতেই কারোনা ভাইরাসের কারনে মায়ের জন্য প্রতি মুহুর্তে চিন্তা হয় পাপিয়া দেবীর। এ বছর কিভাবে মায়ের জন্মদিন পালন করা যায় সেই চিন্তায় ব্যাকুল হয়ে পরিশেষে লাভপুর থানায় যোগাযোগ করেন ফোন মারফত।

লাভপুর থানার ওসি পার্থসারথি মুখোপাধ্যায় জানান, খবর পেয়েই আমরা সাড়ম্বরে জন্মদিন পালনের চটজলদি ব্যবস্হা করে ফেলি যেহেতু হাতে সময় একেবারেই ছিল না। মেয়ে পাপিয়া দেবীর কাছ থেকে ছবি জোগাড় করে ইভা দেবীর সে ছবি বড় আকারে করে ফ্রেমে বাঁধাই। তার সঙ্গে জন্মদিনের কেক অর্ডার দিয়ে বানিয়ে এবং পাঁচ রকম ফল যেমন আম, আঙ্গুর, আপেল প্রভৃতি এবং বেশ কয়েক রকম মিষ্টি, ও শাড়ি উপহার হিসাবে নিয়ে যাই আমরা। ইভা দেবী অত্যন্ত খুশী হয়েছেন এবং আমরাও তৃপ্ত এমনভাবে এক বৃদ্ধা মায়ের জন্মদিন পালন করতে পেরে। এ বিষয়ে লাভপুরের বীরভুম সংস্কৃতি বাহিনীর কর্ণধার উজ্বল মুখোপাধ্যায় উচ্ছ্বসিত হয়ে বলেন, লাভপুর থানার ওসি পার্থবাবু এই সংকটজনক পরিস্হিতিতে এক অসহায় বৃদ্ধার জন্মদিন পালনে যেভাবে উদ্যোগ নিয়েছেন তা সাধারন মানুষ ও পুলিশকর্মীদের আরও একাত্ম করবে। পার্থবাবুকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই।

Related Articles

Back to top button
Close