fbpx
কলকাতাহেডলাইন

ভাইফোঁটায় ডেকে নিয়ে গিয়ে বন্ধুকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ, তদন্তে রবীন্দ্র সরোবর থানার পুলিশ

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: ভাইফোঁটায় ডেকে নিয়ে গিয়ে এক যুবককে খুন করার অভিযোগ উঠল ৪ বন্ধুর বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে রবীন্দ্র সরোবর থানা এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম প্রবীর দাস (৩৮)। লেক থানা এলাকার রহিম ওস্তাগর লেনের বাসিন্দা সে। পরিবারের দাবি, ভাইফোঁটা নিতে যাওয়ার কথা বলে সোমবার বাড়ি থেকে বেরোন প্রবীর। সেখান থেকে ঢাকুরিয়ার পঞ্চাননতলায় এক বন্ধুর বাড়িতে তার দিদির কাছে ভাইফোঁটা নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সোমবার রাতেও তিনি না ফেরায় পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। তাঁকে সাদার্ন অ্যাভিনিউয়ে রাস্তার ধারে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপর মঙ্গলবার তার মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন- ‘নিজেকে বিজেপির থেকে সুরক্ষিত চিহ্নিত করুন’- কর্মসূচিতে যোগদান ১০ লক্ষের বেশি মানুষের, দাবি তৃণমূলের

মৃতের পরিবারের অভিযোগ, পুরনো শত্রুতার জেরে চার বন্ধু মিলে আগে থেকে ষড়যন্ত্র করে পিটিয়ে মেরেছে। ঠিক কী কারণে তাকে খুন করা হয়েছে তা এখনও পরিবারের কাছে স্পষ্ট নয়।তবে মৃতের মায়ের অভিযোগ, মারা যাওয়ার আগে ছেলে আমাকে বলে গেছে, ওর বন্ধুরাই ওকে মারধর করেছে। পুরনো শত্রুতার জেরে ট্রেন লাইনের ধারে এক নির্জন জায়গায় তাঁকে মারধর করে গুরুতর আহত অবস্থায় ওইদিন রাতে তাঁকে সাদার্ন অ্যাভিনিউয়ে রাস্তার ধারে ফেলে গিয়েছে।মৃতের দাদা জানান, ‘চার বন্ধুর বিরুদ্ধে আমরা অভিযোগ করেছি।’ যদিও এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি। তবে পুলিশের কাছে কোনও মৃত্যুকালীন জবানবন্দি দিয়ে যাননি ওই ব্যক্তি, এমনটাই পুলিশ সূত্রে খবর। 

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর পারিপার্শ্বিক তথ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখে তদন্ত এগোবে।তবে যে জায়গায় মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ, সেই জায়গাটি বালিগঞ্জ জিআরপি-র মধ্যে পড়ে। তাই রবীন্দ্র সরোবর থানার পুলিশ জিআরপি-র সঙ্গেও কথা বলছে। একই সঙ্গে অভিযুক্ত যুবকদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে অভিযুক্তদের সন্ধান এবং খুনের কারণ জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।

 

Related Articles

Back to top button
Close