fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দিনে দুপুরে বাইক চুরি, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তদন্ত শুরু পুলিশের

মিলন পণ্ডা, (পূর্ব মেদিনীপুর): মাত্র পাঁচ মিনিট, তার মধ্যেই বাইক উধাও করে দিল দুষ্কৃতীর দল। ঘটনার খবর জানাজানি হওয়ার পরই এলাকা ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। দিনের পর দিন চুরি বাড়তে থাকার এলাকাবাসীরা বেশ আতঙ্কে পরিবেশ তৈরি হয়েছে। রবিবার দিনে দুপুরে এক বাইক চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পটাশপুর দু’নম্বর ব্লকের প্রতাপদিঘী এলাকায়। দুষ্কৃতিকারী যুবকদের বাইকের করে পালানো সময় সিসিটিভি ফুটেজ সামনে এসেছে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূএে জানা গিয়েছে, পটাশপুর ২ ব্লকের রামকৃষ্ণ সারদা শিক্ষা সদন ও সেবাশ্রম রয়েছে। করোনা আবহে এদিন অফিস খোলা রেখে পড়ুয়া ও অভিভাবকদের কাজে সাহায্য করছিল বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেই সুবিধা নিতেই এদিন বিদ্যালয়ে এসেছিলেন সুকুমার বেরা নামের এক অভিভাবক। দুষ্কৃতীরা তাঁর বাইকটি চুরি করে নিয়ে পালায়। কিছুক্ষন পর ফিরে এসে দেখে তার বাইকটি নেই। অভিভাবক সুকুমার বেরা বলেন রামকৃষ্ণ সারদা শিক্ষা সদন ও সেবাশ্রমে তাঁর মেয়ে পড়াশুনা করে।মেয়ের প্রয়োজনে বিদ্যালয়ের অফিসে আসতে হয়েছিল। বিদ্যালয়ের গেটের বাইরে মোটর বাইকটা রেখে ভেতরে ঢুকেছিলেন। ৫ থেকে ৭ মিনিটের মধ্যে কাজ সেরে বাহিরে এসে দেখেন তাঁর বাইক নেই। বাইটটি দেখতে না পেয়ে চমকে যাই। সঙ্গে সঙ্গে ভেতরে ঢুকে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানাই। বলেন কি করবো বুঝতে পারছি না।

ঘটনার সামনে আসার পরই অভিভাবকদের মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। বিদ্যালয়ের গেটের সামনে থেকে বাইক চুরির কথা স্বীকার করে নেয় রামকৃষ্ণ সারদা শিক্ষা সদন ও সেবাশ্রম কর্তৃপক্ষ।ঘটনার পর পটাশপুর থানার পুলিশকে বিষবটি জানানো হয়েছে।স্কুলের গেটের সামনে লাগানো সিসি ক্যামেরার ভিডিও থেকে দেখা গেছে চুরি যাওয়া মোটর বাইকের মালিক গাড়ি রেখে বিধ্যালয়ে ঢোকার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে হাজির হয় একটি বাইক।সেই বাইকে দুই জন যুবক বসে ছিল।দুষ্কৃতীরা তাদের বাইক নিয়ে চুরি যাওয়া বাইকের কাছে দাঁড়ায়। এক দুষ্কৃতী বাইক থেকে নামে ।তারপর এদিক ওদিক কয়েক পা হেঁটে ওই অভিভাবকের বাইকে চেপে বসে।তারপর বাইক স্টার্ট করে দুটি বাইকে দুই জন দুষ্কৃতী চেপে নিজেদের গন্তব্যে বেরিয়ে যায়।

পটাশপুর থানার ওসি চন্দ্রকান্ত শ্যাসমল বলেন একটি বাইক চুরির অভিযোগ দায়ের হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ ধরে অভিযুক্তদের ধরতে জোরদার তল্লাশি শুরু করা হয়েছে।যদিও তদন্তের স্বার্থে আর বেশি কিছু জানাতে রাজি হয়নি।

Related Articles

Back to top button
Close