fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

লকডাউনে বাইকের দাপাদাপি বন্ধ করতে উদ্যোগী পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা দিনহাটা: দিনহাটা মহকুমার বিভিন্নস্থানে  কখনও হেলমেট ছাড়া আবার কখনও এক বাইকে তিনজন চলাচলকারীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলছে পুলিশ। একদিকে চলছে লকডাউন। পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কঠিন এই সময়কালে বৃহস্পতিবার  লকডাউনের দ্বিতীয়দিন দিনহাটা শহরের বিভিন্ন স্থানে অপ্রয়োজনে বাইক নিয়ে ঘোরাঘুরি করা এমনই বেশকিছু বাইক চালককে আটক করে পুলিশ। দিনহাটা থানার ট্রাফিক ইনস্পেক্টর প্রকাশ দাসের নেতৃত্বে শহর জুড়ে এই অভিযান চলে।

এদিন শহরের পাঁচ মাথার মোড়, বাইপাস এলাকায়, মহামায়া পাট চৌপতি, স্টেশন চৌপতি সহ বিভিন্ন এলাকায় সকাল থেকেই পুলিশের কড়াকড়ির ফলে বেশ কয়েকটি মোটরবাইক আটক করা ছাড়াও কাগজপত্র না থাকায় সেগুলির বিরুদ্ধেও নির্দিষ্ট ধারায় কেস করা হয়। অযথা বাইক মেয়ে যারা লকডাউন এর এই সময়কালেও চলাচল করছে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ কড়া হতেই এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান অনেকেই।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় লকডাউন চলাকালীন অনেকেই মোটর বাইক নিয়ে বের হচ্ছেন। কখনও দুইজন আবার কখনও তিনজন মোটরবাইকে ঘোরাঘুরি করছে। এদের অনেকেরই মাথায়  হেলমেট না থাকায় প্রায়ই ছোটখাট দুর্ঘটনা ঘটছে। বাইক দুর্ঘটনা রোধে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইভ নিয়ে বছরভর সচেতনতা প্রচার শুরু হয়েছে। বাইকের দাপাদাপি বন্ধ করতে পুলিশের এই নজরদারিকে সাধুবাদ জানান অনেকেই।

[আরও পড়ুন- অতি বর্ষণে ভেঙে পড়ল কাঠের সেতু , বিপদে কয়েক হাজার মানুষ]

দিনহাটা শহরের বাসিন্দাদের  রানা গোস্বামী, বিভুরঞ্জন সাহা, মদন কর্মকার, উৎপলেন্দু রায়, কৃষ্ণেন্দু সাহা প্রমুখ বলেন একশ্রেণীর বাইক চালক কোনরকম আইনকে তোয়াক্কা না করেই সজোরে বাইক নিয়ে চলাচল করছে। এদের বাড়বাড়ন্তে রাস্তা দিয়ে চলাচলের ক্ষেত্রে আতঙ্কে থাকতে হয়। অধিকাংশ সময় এদের মাথায় থাকে না কোন হেলমেট। এইসব বাইক চালকদের বিরুদ্ধে পুলিশ অনেকটাই কড়া মনোভাব নিতে শুরু করায় কিছুটা হলেও কমবে এদের দাপাদাপি বলেও মনে করেন তারা।

দিনহাটা মহকুমা পুলিশ আধিকারিক মানবেন্দ্র দাস বলেন, রাস্তায় নিয়ম না মেনে বাইক নিয়ে বের হলে পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন এলাকায় সেই অভিযান শুরু হয়েছে। পাশাপাশি দুর্ঘটনা রোধে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইভ নিয়ে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সচেতনতা প্রচার শুরু হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close