fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দলীয় কার্যালয় তৈরিকে ঘিরে রাজনৈতিক সংঘর্ষ, উত্তপ্ত মালদা

জেলা প্রতিনিধি, মালদা: দলীয় কার্যালয় তৈরিকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হল মালদার ইংরেজবাজার। প্রতিবাদে রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মী সর্মথকরা। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার ইংরেজবাজার থানার কোতুয়ালী টিপাজানি এলাকায়। ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃত ব্যক্তি বিজেপির এক গ্রামপঞ্চায়েত সদস্য বলে খবর। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে,স্থানীয় টিপাজানি এলাকায় ফাঁকা জায়গা রয়েছে। সেই জায়গায় সম্প্রতি বিজেপি নেতৃত্ব তাদের কার্যালয় তৈরির কাজ শুরু করে। সেই মত বিল্ডিংও তৈরি হয়। তার ছাদ ঢালাইয়ের কাজ চলছে। এরই মধ্যে বুধবার স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব বাবলু ঘোষ ও মন্টু ঘোষের বাড়িতে ঢুকে মারধর করে বলে বিজেপির দাবি।

এইদিকে এই ঘটনায় মালদা রতুয়া রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে তৃণমূল নেতৃত্ব। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে।

আরও পড়ুন:হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত সোমেন মিত্র, শোকস্তব্ধ রাজনীতি মহল

এক গ্রামবাসী ইরা হালদার বলেন,এই এলাকায় বিজেপি একটি দলীয় কার্যালয় নির্মাণ করেছিল। সেই সময় তৃণমূল কর্মীরা বাধা দেয়। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। ঘটনার প্রতিবাদে তৃণমূলের পথ অবরোধ। তৃণমূলের অভিযোগ ওই এলাকায় একটি শিব মন্দির এবং সংলগ্ন ক্লাব রয়েছে। তার পাশে একটি বিতর্কিত জায়গায় বিজেপি দলীয় কার্যালয় তৈরি করছিল। অবৈধভাবে এলাকায় জমায়েত করছিল। এর প্রতিবাদ করায় তারা আমাদের উপর হামলা চালায়। আমাদের কর্মীদের মারধর করা হয়। লাঠি রড নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে হামলা চালানো হয়।এলাকার বিজেপির মেম্বার বাবলু ঘোষ ও মন্টু ঘোষ নেতৃত্বে হামলা চালানো হয়।

অন্যদিকে, বিজেপি নেতা মানবেন্দ্র চক্রবর্তী বলেন, ওই ক্লাবের সদস্যরা সবাই বিজেপি সমর্থক এটাই অপরাধ। আর সেই কারণেই আমাদের উপর হামলা চালানো হয়েছে। আমরাও এর প্রতিবাদ করেছি। পুলিশকে নিরপেক্ষ তদন্ত করতে হবে। না হলে আমরা আন্দোলনে নামব। পুলিশ অন্যায়ভাবে আমাদের কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। অবিলম্বে আমাদের কর্মীকে ছাড়তে হবে।
ইংরেজবাজারের ভারপ্রাপ্ত কো-অর্ডিনেটর তৃণমূল নেতা দুলাল সরকার বলেন, বিজেপি যেভাবে হামলা চালিয়েছে এর প্রতিবাদেই আমরা পথ অবরোধ করেছিলাম। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেওয়ায় অবরোধ তুলে নিয়েছি।বিজেপি জেলার বিভিন্ন জায়গায় সন্ত্রাস করে দখল নেওয়ার চেষ্টা করছে।

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, উভয় পক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close