fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

লোকাল টু গ্লোবাল! ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের ঋণের জন্য ৩ লাখ কোটি টাকা বরাদ্দ কেন্দ্রের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা পরবর্তী অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে কুড়ি লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি। ‌‌ মঙ্গলবার দেশীয় শিল্পকে আঞ্চলিক লোকাল ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিত তাকে লোকাল থেকে গ্লোবাল ব্র্যান্ডের রূপান্তরিত করতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।‌ আর এমন পরিস্থিতিতে প্রয়োজন বিশাল অর্থনৈতিক প্যাকেজ। বুধবার সেই কুড়ি লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ বিনিয়োগের বিস্তারিত বর্ণ করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন।  ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের ঋণের জন্য ৩ লাখ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে এই প্যাকেজে।আসুন দেখে নেওয়া যাক এই প্যাকেজে দেশের অর্থনীতির আর অন্যান্য কোন কোন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করা হচ্ছে। ‌

দেশের আত্মনির্ভরশীলতা ও বিকাশের লক্ষ্যেই এই প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী।
আত্মনির্ভর ভারত গড়তেই এই প্যাকেজ।
আত্মনির্ভর হওয়া মানেই বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন নয়।
সংস্কারের লক্ষ্যে নেওয়া পদক্ষেপগুলি সফল হয়েছে। গরিবদের জন্য নিরলসভাবে কাজ করছে সরকার। আত্মনির্ভর বলতে ভারতীয় পণ্য বিশ্ব বাজারে একটি ব্র‌্যান্ড হিসেবে তুলে ধরতে চাইছে কেন্দ্র।
আগামী ৪০ দিনের মধ্যে দেশের তৈরি হবে পিপিআই, মাস্ক, ভেন্টিলেটর। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য ৬টি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের ঋণের জন্য ৩ লাখ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। ৪ বছরের জন্য ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পকে ঋণ।‌ ১০০ কোটি টাকা লেনদেন হলে তবে মিলবে ঋণ। এই ঋণে ১ বছরের জন্য সুদ স্থগিত থাকবে। ৪৫ লক্ষ ক্ষুদ্র ও মাঝারি ইউনিট উপকৃত হবে। এই ঋণে কোনও গ্যারান্টি ফি লাগবে না।
এনপিএ আওতায় পড়া ক্ষুদ্র–মাঝারি শিল্পকেও ঋণ দেওয়া হবে। এই খাতে ২০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হচ্ছে। এর ফলে উপকৃত হবে ২ লক্ষ ক্ষুদ্র–মাঝারি শিল্প। ঋণগ্রস্ত ক্ষুদ্র–মাঝারি শিল্পের ব্যবসা বৃদ্ধিতে বরাদ্দ। ব্যবসা বৃদ্ধি বরাদ্দ ৫০ হাজার কোটি টাকা ২০০ কোটি টাকা পর্যন্ত গ্লোবাল টেন্ডার নয়। বিদেশি সংস্থার জায়গায় দেশি সংস্থা অংশগ্রহণ করবে। এর ফলে দেশের ছোট–মাঝারি সংস্থা অংশ নিতে পারবে।‌

এই প্যাকেজের মধ্যে করোনা পরবর্তী ভারত যে দেশীয় কুটির হস্তশিল্প মুখে হবে, এবং আঞ্চলিক শিল্পকে নির্ভর করেই গড়ে উঠবে আগামী ভারতের শিল্পের ভবিষ্যৎ এমনটাই ইঙ্গিত মিলেছে এদিন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর প্যাকেজ বক্তৃতায়।

 

Related Articles

Back to top button
Close