fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আলুর কাটমানি যাচ্ছে কালীঘাটে, মুখ্যমন্ত্রীকে বেনজির আক্রমণ দিলীপ ঘোষের

মিলন পণ্ডা, পূর্ব মেদিনীপুর: কৃষি বিল নিয়ে তীব্র চাপান উতোরের মধ্যে মমত বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘ আলুর কাটমানি যাচ্ছে কালীঘাটে। শনিবার হলদিয়ার বাবুরহাট থেকে দাড়িবেড়িয়া পর্যন্ত মিছিল করে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। তাতে নেতৃত্ব দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এরপর সভামঞ্চ থেকে কৃষি আইনের সমর্থন করতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বেনজির আক্রমণ করলেন তিনি।

 

বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, “চাষি কষ্ট করে চাষ করেন। তারপর দালাল, ফড়েদের বিক্রি করতে হয়। তাই তাঁদের হাতে এক পয়সাও থাকত না। ৫ টাকায় আলু বিক্রি করেন কৃষকরা। বাজারে তা বিক্রি হয় ৪০ টাকায়। বাকি ৩৫ টাকা প্রতি কিলো আলুর কাটমানি কালীঘাটে যাচ্ছে। দিদি, দিদির ভাই, ভাইপোর কাছে যাচ্ছে। সিপিএম, কংগ্রেস, তৃণমূলের যারা দালাল, কৃষকদের টাকা লুঠ করে খেত তারাই এখন কৃষি আইনের বিরোধিতা করছে।” দিলীপ ঘোষের দাবি, কেন্দ্রের বিজেপি সরকার অত্যন্ত কৃষকদরদী। বিজেপি সরকার সবসময় কৃষকদের পাশে আছে। এবার থেকে সরাসরি ফসল বিক্রি করতে পারবেন তাঁরা। তার ফলে আয় বাড়বে কৃষকদের।’

 

কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষিবিল সমর্থনে পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় দাপিয়ে বেড়ালেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ। শনিবার সকালে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়ার মহাকুমার মহিষাদল ও কাঁথি মহাকুমার খেজুরিতে আসেন। রাজ্য সরকার ও পুলিশকে তীব্র ভাষায় আক্রমন করে তিনি বলেন ‘ হলদিয়া পুর নির্বাচন হয়েছিল। সেখানেই পুলিশ ও গুন্ডাবাহিনী ভোট লুট করেছিল।এবার আর দিদির পুলিশ দিয়ে ভোট হবে না। দিল্লি থেকে পুলিশ আসবে। কালো চকচকে বন্দুক নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকবে। দিদির ভাইরা এদিক-ওদিক করলেই প্রথমে ডান্ডা পড়বে, পিঠে দাগ নিয়ে বাড়ি যাবে। বাড়াবাড়ি করলেই আসবে হেঁটে, বাড়ি যাবে স্ট্রেচারে।’

তিনি আরও বলেন ,’রাজ্যের পুলিশ ও গুন্ডাবাহিনী এক হয়েছে। গুন্ডা বাহিনী হামলা চালাচ্ছে এবং পুলিশ মামলা করছে।দিদি লোকসভা নির্বাচনে প্রচার করেছিল ২০১৯ বিজেপি ফিনিশ। আমি দিদিকে বলেছিলাম ২০১৯ বিজেপি কি জিনিস দেখিয়ে দেবো। আমরা ১৮টা আসন জিতেছিলাম।’ শনিবার সকালে হলদিয়া মহাকুমার মহিষাদলের বাবুরহাট থেকে দেউলপোতা পর্যন্ত প্রায় ৫ কিমি রাস্তা কেন্দ্র সরকারের কৃষিবিল সমর্থনে একটি পদযাত্রা করেন। পদযাত্রাতে প্রায় কুড়ি হাজার বিজেপি কর্মী সমর্থক পা মেলান। পদযাত্রাটি বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উৎসাহ চোখে পড়ার মতন ছিল। তারপরে দেউলপোতা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় একটি সভা করেন। সভাতে বক্তব্য রাখেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। উপস্থিত ছিলেন তমলুক সাংগঠনিক জেলার বিজেপির সভাপতি নবারুন নায়ক সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা।

 

এদিন সভাতে তৃণমূল ও সিপিএমের ছেড়ে ১০০ টি পরিবার বিজেপিতে যোগদান করেন। তাদের হাতে বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।এদিন বিকেলে কাঁথি সাংগঠনিক জেলার খেজুরিতে একইভাবে কৃষিবিল সর্মথনে খেজুরি পূর্বচড়া থেকে তল্লা পর্ষন্ত পদযাত্রা করেন দিলীপ ঘোষ। বৃষ্টিকে উপেক্ষা করেই কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী সর্মথকরা পা মেলান। উপস্থিত ছিলেন কাঁথি সংগঠনিক জেলার সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী, সাধারন সম্পাদক তাপস দোলই সহ বিজেপি নেত্বয়রা। প্রয়াত চিকিৎসক বিজেপি নেতা দেবাশিষ সামন্তের ভগবানপুরে বাজকুলে বাড়িতে গিয়ে তাঁর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন ও শোকযাপন করেন দিলীপ ঘোষ।

Related Articles

Back to top button
Close