fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গরিব কল্যাণ যোজনায় গৃহ পরিচারক -পরিচারিকাদের বেতনের আর্জি প্রদীপের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ‘প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনা প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের লক্ষ লক্ষ গৃহ পরিচারক-পরিচারিকাদের মাসিক বেতন দেওয়া হোক।’ কেন্দ্রের কাছে চিঠি লিখে আর্জি জানলেন রাজ্যসভার কংগ্রেস সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য। লকডাউনের জেরে দেশের নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণীর চরম আর্থিক দুর্ভোগের কথা ভেবে কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি লিখে একথা জানান। চিঠির কপি তিনি প্রকাশ্যে আনেন।

কারণ লকডাউনের জেরে বিধস্ত দেশের অর্থনীতি। লকডাউনের মাত্র ৩৯ দিনের মধ্যেই কঙ্কালসার চেহারার মত বেড়িয়ে পড়েছে আর্থিক সঙ্কট। তাই যারা সেই সীমার ও নীচে তাদের কথা ভেবেই চিঠি লেখেন প্রদীপ।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই সময়ে সবচেয়ে বেশি যাদের কথা অনুচ্চারিত থাকে তারা হল মধ্যবিত্ত বা নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণী। এই শ্রেণীর মানুষ চূড়ান্ত দুর্ভোগ সহ্য করছে। কারও অফিসের বেতন হয়নি অথবা কেউ বেতনের অর্ধেক পেয়েছেন। তাদের খরচ কিন্তু কমেনি, বাড়ি ভাড়া অথবা ব্যাংকের কিস্তি সবই দিতে হচ্ছে। ছেলেমেয়ের স্কুলের ফি দিতে হচ্ছে। বাড়ির পরিচারক-পরিচারিকারা কাজ না করলেও তাদের বেতন দিতে হচ্ছে। আমাদের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনা প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের লক্ষ লক্ষ গৃহ পরিচারক-পরিচারিকাদের মাসিক বেতন দেওয়া হোক।’

পাশাপাশি প্রদীপ চিঠি লিখে আরও জানতে চান, ‘তৃতীয় পর্যায়ের লকডাউনের পরে দেশের বিপর্যস্ত অর্থনীতির ফলে যাদের ইতিমধ্যেই চাকরি গেছে অথবা যাদের চাকরি যাবে, তাঁদের বিষয়ে সরকারের পরিকল্পনা কী ?

এইভাবে লকডাউনের সময় অর্থনীতির সঠিক দিশা না থাকলে অচিরেই গরিব মানুষ থেকে ক্ষুদ্র-অতিক্ষুদ্র শিল্পের অবস্থা এতটাই খারাপ হবে যে তাঁর প্রভাব কাটানো সম্ভব হবে না। এই বিষয়ে সরকার বক্তব্য স্পষ্ট করুক।’

এদিন তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের লকডাউন প্রসঙ্গে বলেন, ‘কংগ্রেসের বক্তব্য আগের মতোই আছে। আমরা সরকারের সিদ্ধান্তের পাশে আছি।’

 

Related Articles

Back to top button
Close