fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নরসুন্দরদের ত্রাতা হয়ে পাশে দাঁড়াল সাঁইথিয়ার ‘প্রগতি’ 

সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সাঁইথিয়া : লকডাউন পিরিয়ডে নরসুন্দরদের রোজগারের পথ সম্পুর্ন বন্ধ ।শহরের সব সেলুন বন্ধ। রেশনের চালটুকু মিললেও নগদ পয়সা এই প্রায় দুমাসে শেষ। সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এলো সাঁইথিয়ার সাহিত্য পত্রিকা ‘প্রগতি’। নেতাজী পল্লীর মায়ের আচঁল অনুষ্ঠান ভবনে বুধবার সাঁইথিয়া শহরের প্রায় পঞ্চাশ জন নরসুন্দরকে এক জায়াগায় বসিয়ে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয় ‘প্রগতি’র তরফে।

 

 

আলোচনাসভায় আমন্ত্রিত ছিলেন সাইথিয়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের দুই চিকিৎসক ডাঃ দীপাঞ্জন ভৌমিক এবং ডাঃ মহসিন মন্ডল। চিকিৎসকেরা সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে কিভাবে মানুষের শরীর স্পর্শ না করে চুল কাটা সম্ভব তা ব্যাখ্যা করে বুঝিয়ে দেন। প্রগতি সাহিত্য পত্রিকার সম্পাদক দেবাশীষ সাহা জানান, শহরের নাগরিকদের ও নরসুন্দরদের এই লকডাউন পিরিয়ডে সমস্যার কথা চিন্তা করে আমরা একটা সহজ সমাধানের রাস্তা বের করার প্রচেষ্টায় এই আলোচনাসভার আয়োজন করেছি। চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে মানুষ সেলুনে গেলে কোভিড 19 থেকে দুরে থাকা যাবে।

 

 

এরপর পত্রিকা গোষ্ঠীর তরফ থেকে প্রত্যেককে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, প্লাস্টিক দস্তানা, সাবান, মাস্ক ও কিছু খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। উপস্হিত নরসুন্দর স্বপন ঠাকুর বলেন, আমাদের কথা ভাবার জন্য প্রগতি পত্রিকা গোষ্ঠীকে ধন্যবাদ জানাই। এভাবেই আজ ময়ুরেশ্বর থানা থেকে এলাকার প্রায় একান্নজন নরসুন্দরকে ডেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করা হয়। এলাকার মানুষ পুলিশ প্রসাশনের এই ভুমিকায় উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন।

Related Articles

Back to top button
Close