fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্পূর্ণ হল আধুনিক রাজনীতির চাণক্যর শেষকৃত্য

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতীয় রাজনীতির এক বিশাল অধ্যায়ের পরিসমাপ্তি। দিল্লির লোধি রোডের শ্মশানে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হল ভারতরত্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। ‘রত্ন’ হারা দেশ। তবে কোভিড বিধির জেরে প্রিয় মানুষটিকে শেষবার চোখের দেখা দেখতে পেলেন না অনেকেই। শুধুমাত্র পরিবারের সদস্যরাই পিপিই কিট পরে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে লোধি রোড শ্মশানে হাজির ছিলেন। কার্যত নিঃশব্দেই বিদায় নিলেন সকলের প্রিয় ‘প্রণব’দা।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই প্রণববাবুর পার্থিব শরীর রাখা ছিল তাঁর ১০ রাজাজি মার্গের বাসভাবনে। সেখানে তাঁকে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী-রাষ্ট্রপতি-সহ বহু নেতা। দুপুর একটার পরে শববাহী শকটে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মরদেহ নিয়ে আসা হয় লোধি রোডের শ্মশানে। পিপিপি পরেই তাঁর মরদহে শববাহী শকটে তোলেন সেনাকর্মীরা। প্রণব পুত্র অভিজিত্ মুখোপাধ্যায়ও পিপিপি কিট পরেই বাবার শেষকৃত্য সম্পন্ন করেন। মেয়ে ও নিকট আত্মীয়রা উপস্থিত হয়। শেষশ্রদ্ধায় লোকজনের সংখ্যাও কম করে দেওয়া হয়। শেষকৃত্য গান স্যালুটে শ্রদ্ধা জানানো হয় প্রয়াত নেতাকে।শেষযাত্রাও স্লোগান ওঠে, ‘প্রণবদা অমর রহে’। সত্যিই তো, নশ্বর শরীরটা পঞ্চভূতে বিলীন হয়ে গেলেও আপামর ভারতীয়র মনের মণিকোঠায় তাঁর সদাহাস্যময় মুখটাই রয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: ফোটো ফিচার…ব্রহ্মের শব্দ প্রতীক: প্রণব

সোমবার সন্ধেয় দিল্লির সেনা হাসপাতালে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন দেশের একমাত্র বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। তাঁর পর থেকেই দেশ-বিদেশের রাজনৈতিক মহলে শোকের ছায়া। কারণ, কংগ্রেসের দিল্লি ঘরানার নেতা হয়েও সকল রাজনৈতিক দলের কাছে ভীষণ প্রিয় ছিলেন তিনি। নিন্দুকেরা বলেন, ক্ষমতার অলিন্দা বিচরণ করলেও জনভিত্তি ছিল না তাঁর। অথচ শেষবার তাঁকে দেখার জন্য সকলে ছুটে আসতে চেয়েছিলেন অনেকেই। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় কোভিড বিধি। তাই একাধিক নিয়ম পরিবর্তন করেই সারা হল একমাত্র বাঙালি রাষ্ট্রপতির শেষকৃত্য।

Related Articles

Back to top button
Close