fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

৭৪তম স্বাধীনতা দিবসে জাতির উদ্দেশে ভাষণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আজ ৭৪তম স্বাধীনতা দিবসে দিল্লির লালকেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ৭টা ১৮ মিনিটে তিনি লালকেল্লায় পৌঁছন। জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বললেন, করোনা যুদ্ধে ভারত জিতবেই। দেশ আত্মবিশ্বাসী।

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ একনজরে:

  • দেশবাসীকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা।
  • আজ যে আমরা স্বাধীন ভারতে শ্বাস নিচ্ছি, তার পিছনে বহু মা, ভাই, বোনের ত্যাগ রয়েছে। প্রত্যেককে আমার নমস্কার। আমাদের সেনাবাহিনী, আধাসেনা, পুলিশ প্রত্যেকে মা ভারতীর সুরক্ষায় নিবেদিত থাকেন।
  • শুধু Make In India নয়, এবার থেকে Make For the World-এর কথাও ভাবতে হবে। দেশের সব গ্রামে অপটিক্যাল ফাইবার পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি প্রধানমন্ত্রীর।
  • করোনাকালে অনলাইন ক্লাস ট্রেন্ড হয়ে উঠেছে। অনলাইন ট্রানজাকশনও বাড়ছে। ইউপিআই-তে ৩ লক্ষ কোটির ট্রানজাকশন হয়েছে, ভারতের মত দেশে।
  • গত এক বছরে ১৮ শতাংশ বৃদ্ধির মধ্যে দিয়ে বিদেশি প্রত্যক্ষ বিনিয়োগ (এফডিআই) অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। এটা খুব আশার কথা যে বিশ্ব যখন কোভিডের সঙ্গে যুঝছে, তখনও একের পর এক বিনিয়োগ আসছে ভারতে।’
  • নতুন শিক্ষানীতিতে একজন ছাত্র বা ছাত্রী সহজেই গ্লোবাল সিটিজেন হয়ে উঠবে।
  • স্বাধীন ভারতের সংকল্প হওয়া উচিৎ Vocal For Local. আমাদের দেশে যা তৈরি হচ্ছে, তা নিয়ে আমাদের গর্ব থাকা উচিৎ।
  • আত্মনির্ভরতা মানে শুধু এই নয় যে আমরা বাইরে থেকে আমদানি কমাব, সেইসঙ্গে আমাদের নিজস্ব সৃজনশীলতা বাড়াতে হবে।
  • আত্মনির্ভর ভারত’, এটা আজ ১৩০ কোটি ভারতবাসীর জন্য একটা মন্ত্রে পরিণত হয়েছে। বাড়িতে ছেলে কিংবা মেয়েদের ২৬-২৭ বছরেই আত্মনির্ভর হতে বলা হয়। আমরাও ৭৫ বছরে পা দিচ্ছি। তাই আত্মনির্ভর হওয়া আমাদের স্বপ্ন।
  • আজ দেশ জুড়ে সংকল্প নেওয়ার সময়। আগামী বছর ৭৫ বছরে পা দেবে ভারতের স্বাধীনতা। তাই আগামী ২ বছরের জন্য আমাদের সংকল্প নিতে হবে। ৭৫ বছরে পা দেওয়ার সময় যেন আমরা সেই সংকল্প পূরণ করতে পারি।
  • আমার দেশবাসীর ক্ষমতা, আত্মবিশ্বাস আর সম্ভাবনার প্রতি আমি যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। আমরা যখন কিছু করার পরিকল্পনা করি, সেটাকে অর্জন না করে থেমে থাকি না।’
  • আমাদের দেশ কী করতে পারে, তা লাদাখে দেখে নিয়েছে গোটা দুনিয়া।

  • আজ দেশ এক পরিবর্তিত পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। আমি চোখের সামনে ছোট ছোট শিশুদের দেখতে পাচ্ছি  করোনার সঙ্গে লড়াই করতে বহু মানুষ নিজেদের নিয়োজিত করেছেন। সেইসব করোনা যোদ্ধাদের আমার প্রণাম।
  • ভ্যাকসিন কবে আসবে, এই একটাই প্রশ্ন প্রত্যেকটা মানুষের মনে।
  • ন্যাশনাল হেল্থ স্কিমের সূচনাও হচ্ছে ভারতে। ভারতের প্রত্যেক নাগরিককে দেওয়া হবে হেল্থ আইডি। তাতে কে কোনও চিকিৎসকের কাছে যাচ্ছে, কী ওষুধ খাচ্ছেন, কী ডায়গোনোসিস হচ্ছে তার সব তথ্য থাকবে।
  • করোনা ভাইরাসের টিকার জন্য বিজ্ঞানীরা কাজ করে চলেছেন। ভারতের তিনটে টিকা-দাবিদার বিভিন্ন পর্যায়ের পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।
  • কয়েক মাস আগে পর্যন্তও আমরা এন-৯৫ মাস্ক আর পিপিই অন্য দেশ থেকে আমদানি করতাম। কিন্তু এখন আমরা নিজেরাই এর উত্পাদন এমন ভাবে করছি যে নিজের দেশের চাহিদা পূরণ তো হচ্ছেই, পাশাপাশি অন্য দেশকেও সাহায্য করতে পারছি।’
  • দেশে মহিলারা এখন কয়লা খনিতে কাজ করেন, ফাইটার জেট নিয়ে আকাশেও ওড়েন। গর্ভবতী মহিলাদের ৬ মাসের সবেতন ছুটি দেওয়া হয়।১ টাকায় স্যানিটারি ন্যাপকিন পৌঁছে দেওয়া হয় ভারতের মহিলাদের জন্য।
  • যখনই মহিলাদের কোনও সুযোগ দেওয়া হয়েছে তাঁরা ভারতকে গর্বিত করেছে, ভারতকে শক্তিশালী করেছে। মহিলাদের সম পরিমাণ সুযোগ দেওয়ার জন্য আজ আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
  • ২২ কোটি জনধন অ্যাকাউন্টে করোনা কালে জমা পড়েছে টাকা। অদূর ভবিষ্যতে ভারতে মহিলাদের বিয়ের বয়স পরিবর্তনের কথাও ভাবা হবে।
  • ভারত সেইসব কম সংখ্যক দেশগুলোর মধ্যে একটা, যেখানে জঙ্গলের পরিমাণ ক্রমশ বাড়ছে।
  • ‘জল জীবন মিশন’-এর মধ্যে দিয়ে আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে সব বাড়ির কলেই খাবার জল পৌঁছে যাবে।
  • সব ভারতীয়ের জন্য বাড়ি। এটা আরও একটা দিক যেই দিকে আমরা কাজ করছি। সব ভারতীয়ের মাথায় ছাদ থাকবে, এই সংকল্পটা আমরা কয়েক বছরের মধ্যেই পূরণ করব। গরিবের জন্য আমরা বাড়ি তৈরি করছি।’

স্বাধীনতা দিবসের সকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে প্রথা মেনে গার্ড অফ অনার প্রদর্শন করে সশস্ত্র বাহিনী ও দিল্লি পুলিশ। এর পরে জাতীয় সঙ্গীত, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, ২১টি গান স্যালুট। এসবের পরে প্রধানমন্ত্রীর জাতির উদ্দেশে ভাষণ ও সম্মিলিত ভাবে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন। সব শেষে তেরঙা বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি।

তবে করোনা আবহে এবার অনেক পরিবর্তন আনা হয় মূল অনুষ্ঠানে।এবার লালকেল্লার অনুষ্ঠানে কোনও স্কুল পড়ুয়া উপস্থিত ছিল না।প্রত্যেজ বছর তারা হাজির থাকে। প্রতি বার মোট উপস্থিতি যেমন থাকে তার তুলনায় মাত্র ২০ শতাংশ ভিভিআইপি লালকেল্লা এলাকায় উপস্থিত ছিলেন। গত বছরেও অতিথি সমাগম হয়েছিল প্রায় ১০ হাজার। যে অতিথিদের  বসার ব্যবস্থাতেও অনেক বদল আনা হয়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক নির্দেশিত সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনেই বসার ব্যবস্থা করা হয়।

Related Articles

Back to top button
Close