fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

ভারতের সনাতন সংস্কৃতিকে বিকৃত করে তৈরি হচ্ছে ‘আদিপুরুষ’! ক্ষমা চাইলেন সইফ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের সনাতন সংস্কৃতিতে আঘাত, ‘আদিপুরুষ’ নিয়ে মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইলেন সইফভারতের সনাতন সংস্কৃতিকে বিকৃত করে এক শ্রেণির মানুষেরা চেষ্টা করছে লাইম লাইটে আসার। হিন্দু সংস্কৃতিকে বিকৃত করে তৈরি হচ্ছে বহু ছবি। ইতিমধ্যে এমনই এক ছবিকে নিয়ে হিন্দুত্ববাদীরা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। অভিনেতা সইফ আলি খানের ছবি ‘আদিপুরুষ’ নিয়ে কথা বলার পর তাকে ছবি থেকে বাদ দেওয়ার দাবি তুলেছিলেন নেটিজেনদের একাংশ। রামায়ণের উপর ভিত্তি করে তৈরি হচ্ছে ছবির চিত্রনাট্য। ছবিতে সইফ রাবণের ভূমিকায় অভিনয় করছেন। রামের চরিত্রে অভিনয় করবেন দক্ষিণী তারকা প্রভাস। এখনও শুরু হয়নি ছবির শ্যুটিং। জানা যাচ্ছে, অভিনেত্রী কৃতী স্যাননকে বেছে নেওয়া হতে পারে সীতার চরিত্রের জন্য।

জানা গিয়েছে, আদিপুরুষে রামকে অপমান করা হচ্ছে। রাবণকে নায়কের ভূমিকায় দেখানো হবে। সেখানে সীতা হরণকেও ন্যায্য হিসেবে দেখানো হবে। আর এই কারণেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছে হিন্দুত্ববাদীরা। মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেতা রাম কদম হুমকি দিয়েছিলেন, ‘‘যদি ‘আদিপুরুষ’ ছবিতে হিন্দুধর্মকে আঘাত করা হয়, তবে সেটা মেনে নেব না আমরা।’’

বিজেপির রোষানলে পড়ে ক্ষমা চাইতে হল সইফকে। এক সাক্ষাৎকারে সইফ বলেছিলেন, “রামায়ণের মূল প্লটকে অন্য দিক থেকে দেখা হয়েছে। এখানে রাবণের মানবিক দিকটি তুলে ধরা হবে। সীতাহরণের ঘটনাটির ন্যায্যতাও দেখানো হবে এই ছবির মাধ্যমে। ছবির বক্তব্য, গোটা ঘটনাই শুরু হয়েছে শূর্পণখার নাক কেটে দেওয়ার ফলে।”

এদিন সইফ বলেন, ‘‘জানতে পারলাম, আমার একটি মন্তব্য বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। কিছু মানুষের ভাবাবেগ আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। কিন্তু আমি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে কিছু করিনি। আমি ক্ষমা চাইছি। আমার মন্তব্যটি ফিরিয়েও নিচ্ছি। ভগবান রাম আমার কাছে চিরকালই একজন প্রকৃত হিরো। অমঙ্গলের বিরুদ্ধে মঙ্গলের লড়াই ও জয় এই ছবির মূল বিষয়বস্তু। কোনও প্রকার সাংস্কৃতিক বিকৃতি ‘আদিপুরুষ’ ছবিতে নেই।’’ এরই প্রেক্ষিতে সইফকে এই ছবি থেকে বাদ দেওয়ার দাবি তুলছেন নেটিজেনদের একাংশ। তাঁদের মতে, ‘সংস্কৃতিকে বিকৃত করা হচ্ছে’।

নেটাগরিকদের একাংশের মতে, সইফ আলি খান এবং পরিচালক ওম রাউত এই ছবির মাধ্যমে হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করতে চাইছেন। বিজেপি নেতা রাম কদম জানিয়েছিলেন, “সম্প্রতি অভিনেতা সইফ আলি খান একটি চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করেছেন। রাবণের মানবিক সত্তার প্রকাশ, মা সীতার অপহরণ ও শ্রী রামের বিরুদ্ধে রাবণের যুদ্ধকে ন্যায্যতা দেওয়া হলে সেটা আমরা মেনে নেব না। বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে একটা নতুন প্রবণতা লক্ষ্য করছি আমরা। উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে ছবিগুলিতে হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগে আঘাত করা হচ্ছে। অন্য ধর্মের ক্ষেত্রে এই একই কাজ করা হয় না তো! আমি একজন হিন্দু হয়ে বলছি, আমাদের আবেগে যেন আঘাত না করা হয়। আমার মতে, সইফ পাবলিসিটি স্টান্টের জন্য সংবাদমাধ্যমে এসব বলে বেড়াচ্ছেন।”

 

Related Articles

Back to top button
Close