fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পেন্সিলের সিসে গৌতম বুদ্ধের মূর্তি বানালেন কেশপুরের প্রসেনজিৎ

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : আজ বুদ্ধ পূর্ণিমা। আজকের মহান দিনেই  পেন্সিলের সিসের মাথায় গৌতম বুদ্ধের মূর্তি বানালেন শিল্পী প্রসেনজিৎ কর। এক কথায় বলা যায় তাক লাগালেন তিনি। এর আগে পেন্সিলের সিসে বিশ্বের সবচেয়ে ছোট আকারের দুর্গা প্রতিমা তৈরির কৃতিত্ব প্রসেনজিতের দখলে। পালকের উপর নানা রকম ছবি এঁকে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। পায়রার একটি মাত্র পালকে গত ক্রিকেট বিশ্বকাপের স্কোয়াডে থাকা সমস্ত ভারতীয় ক্রিকেটারদের ছবি এঁকে তাক লাগিয়েছিলেন তিনি। কদিন আগেই একটিমাত্র অশ্বত্থ পাতার মাঝে কাটিং করে ক্যামেরা সহ সত্যজিৎ রায়ের ছবি তৈরি করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এবার বুদ্ধ পূর্ণিমাতে বুদ্ধমূর্তি গড়লেন।

অথচ প্রসেনজিতের জীবন সহজ সরল নয়। অভাব অনটন রয়েছে আষ্টেপৃষ্ঠে। বছর ২৭ এর এই যুবক প্রসেনজিৎ উচ্চমাধ্যমিক পাশের পর মেদিনীপুর আই টি আই থেকে প্রোডাকশন ম্যানুফ্যাকচারিং ট্রেডে টেকনিক্যাল ডিগ্রী নিয়ে পাশ করেছেন। পাশাপাশি নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি বিষয়ে স্নাতক হয়েছেন। বর্তমানে কেশপুরের রানীয়ড বাজারে বাবার গ্যারেজে সহকারী মেকানিক হিসেবে কাজ করেন।  আর সময় বাঁচিয়ে মনের আনন্দে তৈরি করেন নানা সৃজনশীল শিল্প।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর ব্লকের শীর্ষা ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের রানীয়ড গ্রামের বাসিন্দা মাইক্রো আর্ট শিল্পী প্রসেনজিৎ কর। পেশায় মোটর মেকানিক রানীয়ড ক্ষুদিরাম বিদ্যাপীঠের প্রাক্তন ছাত্র প্রসেনজিৎ বরাবরই এইরকম। সমসাময়িক বিভিন্ন ঘটনা, আলোচিত বিষয়, ব্যক্তি বা উৎসবকে নিজের সৃষ্টি দিয়ে বেশীরভাগ সময় নিজেই শ্রদ্ধা জানান এইভাবে।

বাবা মুক্তিপদ কর একজন মোটর মেকানিক। মা ছন্দা কর সামান্য গৃহবধূ। তাঁদের দুই ছেলে মেয়ের মধ্যে প্রসেনজিৎ বড়। বোন পূজার বিয়ে হয়ে গেছে। একদিকে যে হাতে রেঞ্জ, হাতুড়ি ধরেন, সেই হাতেই ফুটিয়ে তোলেন অপূর্ব শিল্পসুষমা। অসাধারণ প্রয়াস তাঁর। এভাবেই কয়েক বছরের মধ্যে প্রসেনজিতের খ্যাতির মুকুটে যুক্ত হয়েছে নানা পালক। ২০১৯ সালের নভেম্বরে সারা বাংলা কুইজ কার্নিভাল সিজিন ফোরে মেদিনীপুর কুইজ কেন্দ্র সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি প্রসেনজিতের হাতে তুলে দিয়েছে “মেদিনীপুর রত্ন” পুরস্কার। পাশাপাশি স্বীকৃতি পেয়েছেন ‘ইন্ডিয়া বুক অফ্ রেকর্ডস’, ‘ইন্টারন্যাশনাল বুক অফ্ রেকর্ডস’, ‘ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস্ ইন্ডিয়া’, ‘রয়েল সাকসেস ইন্টার ন্যাশনাল বুকস্ অফ্ রেকর্ডস’ থেকেও।

আরও পড়ুন: দেড় হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়ে রাজ্যে, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৯২ জন আক্রান্ত

এবছর ফেব্রুয়ারিতেই মেদিনীপুরে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের চারুকলা পর্ষদের উদ্যোগে ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তথ্য সংস্কৃতি দপ্তরের সহযোগিতায় আয়োজিত ছদিনের রাজ্যস্তরীয় আবাসিক শিবিরে নিজের যোগ্যতায় সুযোগ পেয়েছিলেন। শিবিরে নিজের কাজের মধ্য দিয়ে অন্যান্য অনেক শিল্পীর মতো শিবিরের পরিচালকবৃন্দ ও পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলা তথ্য সংস্কৃতি দপ্তরের প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

আজ পেন্সিলের শীষের উপর তাঁর তৈরি গৌতম বুদ্ধের মূর্তি বরাবরের মতো তাঁর অনুরাগীদের অবাক করে দিয়েছে। সংসার চালানোর জন্য গ্যারেজের কাজ করতে করতেই সময় চলে যায়। শিল্প সৃষ্টির দিকে সেভাবে সময় দিতে পারেননা। আসলে পেটের কথা ভাবতে হয় তাঁকে। অনেক সময় রাত জেগে ঘন্টার পর ঘন্টা ব্যয় করে করতে হয় একাজে। প্রসেনজিৎ বলেন,এখন লকডাউন চলছে। তাই কিছুটা সময় হাতে পেয়ে কিছু কাজ করছি। তাঁর কথায়, যদি সরকারি কোন কাজ মিলতো তবে হয়তো শিল্প সৃষ্টিতে আরও একটু মনোযোগী হতে পারতাম।

Related Articles

Back to top button
Close