fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের ওপর আক্রমণের প্রতিবাদে এবং দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে অবস্থান-বিক্ষোভ

অভিষেক আচার্য, কল্যাণী: নদিয়ার বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র ছাত্রাবাসে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিট প্রেসিডেন্ট অনুভব হুইকে বেধড়ক মারধর ও বোমাবাজির প্রতিবাদে এবং দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটের সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা। এই অবস্থান-বিক্ষোভকে সমর্থন জানিয়েছে রাজ্য ও জেলার টিএমসিপি-র ছাত্র সংগঠন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সৌমাভ হাজরা বলেন, যেভাবে বহিরাগতরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রাবাসে থাকা অনুভব হুইয়ের ওপর আক্রমণ চালায় ও বোমাবাজি করে তাতে আমরা স্তম্ভিত ও হতবাক। অবিলম্বে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে হবে পুলিশ প্রশাসনকে। যতদিন না দোষীরা গ্রেফতার হচ্ছেন ততদিন পর্যন্ত এই অবস্থান-বিক্ষোভ ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষ থেকে চলবে বলে জানান সৌমাভ।

রাজ্য তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সম্পাদক রাকেশ পাঁরুই বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের এই আন্দোলনকে আমরা সমর্থন জানাচ্ছি। কারণ আক্রান্ত অনুভব হুই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউনিট প্রেসিডেন্ট। যাঁরা আক্রমণ চালিয়েছে তাঁরা বহিরাগত। এখানে গোষ্ঠীদ্বন্দের কোনো ব্যাপার নেই। আমরা থানায় অভিযোগ জানিয়েছি। দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার না করা হলে আমাদের এই আন্দোলন চলবে।

আরও পড়ুন: ঝড়ে বাসা হারানো পাখিদের আশ্রয় হয়ে উঠেছে ঝুড়ি ও মাটির কলসি

অন্যদিকে, এবিভিপি ছাত্র সংগঠনের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় গোষ্ঠীদ্বন্দের শিকার হন অনুভব হুই। যদিও এই অভিযোগকে পুরোপুরি খারিজ করে দেন জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সৌরিক মুখার্জী। তিনি বলেন, এবিভিপি ও এসএফআইয়ের কোনো অস্তিত্ব নেই। ফলে তাঁদের অভিযোগের কোনো গুরুত্ব নেই আমাদের কাছে। কোনো গোষ্ঠীদ্বন্দের ব্যাপার নেই। যে ঘটনা ঘটেছে তাতে পুরোপুরি হাত রয়েছে বহিরাগতদের। আমরা দোষীদের গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি। হরিণঘাটার পুলিশ সূত্রের খবর, অভিযোগ হয়েছে। তদন্ত চলছে।

উল্লেখ্য, রবিবার ভোর রাতে বিধান চন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র ছাত্রাবাসে ঢুকে ইউনিট প্রেসিডেন্ট অনুভব হুই সহ তিনজন ছাত্রকে বেধড়ক মারধর করে বহিরাগতরা। পাশাপাশি হস্টেলের রুমে দুটো বোমা ও মারে দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় গুরুতর আহত হন অনুভব। তাঁর মাথায় গুরুতর চোট লাগে। আরো অভিযোগ বিয়ারের বোতল দিয়ে অনুভব কে খুনের চেষ্টা করা হয়। এই ঘটনায় উত্তাল হয়ে ওঠে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। ক্ষোভে ফেটে পড়েন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা।

Related Articles

Back to top button
Close