fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

জরুরি অবস্থার মধ্যেও থাইল্যান্ডে বিক্ষোভ অব্যাহত

ব্যাংকক,(সংবাদ সংস্থা): থাই রাজা মহা ভাজিলংকর্নের ক্ষমতা কমানো এবং প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান-ওচার পদত্যাগের দাবীতে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছেন হাজার হাজার মানুষ। জরুরি অবস্থা অমান্য করে বৃহস্পতিবার তারা ব্যাংককে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে সমবেত হয়েছিলেন।

সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ ছাড়াও সরকার ভেঙে দিয়ে নতুন নির্বাচন, সামরিক সরকারের লেখা সংবিধান সংশোধন, ভিন্নমতের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধ এবং রাজশাসন সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভকারীরা জামায়াতবদ্ধ হলে স্থানীয় সময় রাত ১০টার দিকে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় নিরাপত্তাবাহিনী। কিন্তু, তাতেও দমছে না বিক্ষোভকারীরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন একই জায়গায় সমবেত হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। বিক্ষোভকারীদের এক নেতা বলেছেন, আমরা মৃত্যুর আগে পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাব। আমরা পিছু হটব না, দৌঁড়ে পালাব না। আমরা কোথাও যাচ্ছি না।

এদিকে, সরকারি আদেশ অমান্য করেও রাস্তায় এত মানুষের বিক্ষোভ আশ্চর্যজনক কিছু নয় বলে মন্তব্য করেছেন থাম্মাসাত বিজনেস স্কুলের সহযোগী অধ্যাপক পাভিদা পানানন্দ। তিনি বলেন, “মানুষের মনোভাব উত্তপ্ত। এই বিক্ষোভ ব্যাংককের মানুষদের রাগ ও হতাশার গভীরতা দেখিয়ে দিয়েছে। তারা এখন জরুরি অবস্থাকেও ভয় পাচ্ছে না।”

আরও পড়ুন:কৃষ্ণ ‘জন্মভূমি পুনরুদ্ধার’ সংক্রান্ত মামলা গৃহীত মথুরা আদালতে

তবে জানা যাচ্ছে, বিক্ষোভের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গত বৃহস্পতিবার জরুরি অবস্থা জারি করেছে থাই সরকার। যাতে পরোয়ানা ছাড়াই বিক্ষোভকারীদের গ্রেফতার করতে পারে নিরাপত্তাবাহিনী এবং প্রয়োজনে যেকোনও ধরনের ইলেক্ট্রিক সরঞ্জাম বাজেয়াপ্ত করতে পারে। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার জরুরি অবস্থা জারির পরপরই সরকারি ভবন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বাইরে জড়ো হওয়া বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয় পুলিশ। এসময় আটক করা হয় অন্তত ২০ জনকে।

Related Articles

Back to top button
Close