fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদায় জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণে যুক্ত শ্রমিকদের পারিশ্রমিক বন্ধ, বিক্ষোভ

মিল্টন পাল,মালদা: জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজে যুক্ত শ্রমিকদের পারিশ্রমিক না পাওয়ার অভিযোগ তুলে এনএইচআইএ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে অবস্থান-বিক্ষোভ। আর যার জেরে করোনা আবহে চরম সংকটের মুখে পড়েছেন শতাধিক শ্রমিক। ঘটনায় মঙ্গলবার জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের (এনএইচআইএ) বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে বৈষ্ণবনগর থানার টোলগেট সংলগ্ন এলাকায় শ্রমিক সংগঠন অফিসের সামনে অবস্থান, বিক্ষোভে সামিল হলেন শতাধিক শ্রমিকেরা। এমনকি অসহায় শ্রমিকেরা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছে লিখিত চিঠিও পাঠিয়েছেন।

এইচসিসি (হিন্দুস্তান কনস্ট্রাকশন কোম্পানি) অধীনস্থ মালদা এবং মুর্শিদাবাদ জেলায় কর্মরত ১১০০ শ্রমিক মঙ্গলবার থেকে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। এরপরই নিজেদের বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ , অবস্থানে সামিল হয়েছেন।
এদিন সকাল থেকেই মালদার বৈষ্ণবনগর থানার ১৮ মাইল এলাকার টোলগেটের সামনেই অবস্থান, বিক্ষোভ চালিয়ে যান কয়েক’শো শ্রমিক। তাঁদের দাবি, লকডাউনের জেরে এখন সংকটের মুখে তাদের পরিবার। ৩৪ জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ কোনরকম ভাবেই বকেয়া বেতন দিয়ে তাদের সাহায্য করছে না। বারবার দাবি করার পরেও কর্তৃপক্ষের এহেন উদাসীনতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে সড়ক সম্প্রসারণের কাজ বন্ধ করেই বিক্ষোভ, অবস্থান শুরু করা হয়েছে।

যদিও এপ্রসঙ্গে মালদার এনএইচআইএ’র প্রজেক্ট ডিরেক্টর দীনেশ কুমার হানসারিয়া জানিয়েছেন, এব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যা বলার বলবে। এর বেশি কিছু বলতে পারব না।

এইচসিসি কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে, মালদা জেলার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের বাইপাস রোড, কালিয়াচক, গাজোল ব্লকের জাতীয় সড়কের সম্প্রসারণের কাজ চলছে। এছাড়াও মুর্শিদাবাদ জেলার ধুলিয়ান, বল্লালপুর এবং বীরভূম জেলার রামপুরহাট হয়ে পাকুর যাওয়ার সংলগ্ন জাতীয় সড়কে কাজ করছেন এইচসিসির অধীনস্থ প্রায় ১১০০ শ্রমিক। কিন্তু এদের গত ছয় মাস ধরে কোনও পারিশ্রমিক মেটানো হয়নি বলে অভিযোগ। এমনকী মেডিকেলের সমস্ত সুবিধা, বোনাস সবই বন্ধ রয়েছে। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় গত ২৪ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে দেশজুড়ে লকডাউন।

এই পরিস্থিতিতে এই ১১০০ শ্রমিক এখন অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছেন। তাঁরা দাবি করেছেন, এই পরিস্থিতিতে তাদের সমস্ত বকেয়া বেতন পরিশোধ করুক জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এব্যাপারে কোনও হেলদোল নেই এনএইচআইএ’র। তাই পুরো বিষয়টি নিয়ে এইচসিসি’র তৃণমূল পরিচালিত শ্রমিক সংগঠন ফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছে শ্রমিকদের স্বার্থের কথা ভেবে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।

এদিন ১৪ মাইল এলাকার বিক্ষোভকারী শ্রমিকদের অভিযোগ, আমরা জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ করে বকেয়া ছয় মাসের বেতন, বোনাস কিছুই পাইনি। লকডাউনের মধ্যে এনএইচআই-এ কর্তৃপক্ষ আমাদের পারিশ্রমিক না দেয়, তাহলে অর্ধাহারে মরতে হবে।

তৃণমূল পরিচালিত ফেডারেশন অব অল ইন্ডিয়া সাধারণ সম্পাদক সুনীল সরকার বলেন, শ্রমিকদের বকেয়া বেতন যদি না দেওয়া হয়, তাহলে অনির্দিষ্টকালের জন্য জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ বন্ধ থাকবে। পুরোপুরি কাজ বন্ধ থাকবে অনির্দিষ্টকালের জন্য। এনএইচআই’এ কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার বিরুদ্ধেই এবং শ্রমিকদের স্বার্থের কথা ভেবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে চিঠি লিখে জানানো হয়েছে। শ্রমিকদের বকেয়া বেতন না মিললে, আগামীতে বৃহত্তর আন্দোলন চালানো হবে।

Related Articles

Back to top button
Close