fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দুর্গাপুজোর অনুদান ও পুরোহিত ভাতা নিয়ে জনস্বার্থ মামলা হাইকোর্টে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : জনগনের ট্যাক্সের টাকায় তৈরি তহবিল থেকে বেআইনি অনুদান কেন ? এই প্রশ্ন তুলে এবং এই অনুদানের বিরোধিতায় জোড়া জনস্বার্থ মামলা দায়ের হল কলকাতা হাইকোর্টে।  একটি মামলা দায়ের হয় দুর্গা পুজোয় রাজ্যের ক্লাবগুলোকে ৫০ হাজার করে অনুদান কেন ? এই প্রশ্ন তুলে। এবং অপর মামলাটি দায়ের হয়েছে রাজ্যের পুরোহিতদের এক হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়ার বিরোধিতায়। দুটি মামলাই দায়ের করেছেন দুর্গাপুরের সিটু নেতা সৌরভ দত্ত। আগামী বুধবার এই মামলারই শুনানি রয়েছে হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে।
এদিন মামলাকারীর আইনজীবী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য, শামীম আহমেদ ও সালোনি ভট্টাচার্য জানান, বিশেষ ধর্ম সম্প্রদায়ের এক শ্রেণীর মানুষকে রাজ্য সরকার অনুদান দিতে পারেনা। এতে সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষতা নষ্ট হবে। পাশাপাশি, আইনজীবীদের দাবি, জনসাধারণের ট্যাক্সের টাকায় তৈরি তহবিল থেকে শুধুমাত্র মানুষের জন্য হাসপাতাল, স্কুল, রাস্তাঘাট, আলো, জলের মতো উন্নয়ন প্রকল্পের কাজে খরচ করা যায়। অনুদান দেওয়া যায় না। এটা সংবিধানবিরোধী এবং এক বিশেষ ধর্মের, সম্প্রদায়ের মানুষকে খুশি করতে অন্য সম্প্রদায়কে দুঃখ দেওয়ায় ধর্মনিরপেক্ষতা নষ্ট হবে বলে দাবি আইনজীবিদের।
পাশাপাশি, এই অনুদান দেওয়ার ক্ষেত্রে ও বাজেটের কোনও নিয়ম মানা হয়নি বলে দাবি করেন আইনজীবীরা। জানান, এই অর্থবর্ষে বাজেটে ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হলেও মুখ্যমন্ত্রী সেদিন রাজ্যের ৩৭০০০ পুজো কমিটির অনুমোদনের জন্য ৫০ হাজার করে টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দেন। পাশাপাশি ৫০  শতাংশ বিদ্যুৎ বিল ও দমকলের সম্পূর্ণ ছাড় দিয়ে প্রায় ১৮৫ কোটি টাকা খরচ হবে রাজ্যের। যা বাজেটের থেকে চার দশমিক ছয় গুন। উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে দুর্গাপুজো কমিটিগুলোকে ১০,০০০ টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করে রাজ্য সরকার। এর পর মামলার প্রেক্ষিতে বয়ান বদল করে রাজ্য জানায়, ট্রাফিক পুলিসের ‘সেফ ড্রাইভ-সেভ লাইফ’ প্রোজেক্টেই এই টাকা দিচ্ছে সরকার। সেই মামলায় অনুদান দেওয়ার ওপরে স্থগিতাদেশ দেয় হাইকোর্ট। সুপ্রিমকোর্টে মামলা দায়ের হয়। রাজ্য ও কলকাতা পুলিসের মাধ্যমে টাকা দেওয়া যাবে বলে নির্দেশ দিয়েছিল শীর্ষ আদলত।
তবে এখনও সেই মামলার নিষ্পত্তি হয়নি। এরপর ২০১৯-এর দুর্গাপুজো কমিটিগুলোকে ২৫,০০০ টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করে রাজ্য। এবছর সেই অনুদানের পরিমাণ বেড়ে ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করে রাজ্য। পাশাপাশি, একই সঙ্গে ধর্মনিরপেক্ষতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে রাজ্য পুরোহিত ভাতা দেওয়ার বিরোধিতায় মামলা দায়ের হয় হাইকোর্টে।
এদিন দুটি মামলারই শুনানি ছিল হাইকোর্টে। আইনজীবী সালোনি ভট্টাচার্য জানান, এদিন মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রতিলিপি চায় আদালত। বুধবার জমা দেবেন তারা।

Related Articles

Back to top button
Close