fbpx
কলকাতাহেডলাইন

গ্রিন জোনগুলোতে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে চলবে গণপরিবহন

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে মিলল অনুমতি, রাজ্যের গ্রিন জোনগুলোতে গণপরিবহন চালুর অনুমতি দিল রাজ্য পুলিশ। তবে সেখানেও যাত্রী সংখ্যা হতে হবে ৫০ শতাংশের কম। মঙ্গলবার টুইট করে একথা উল্লেখ করে রাজ্য পুলিশ লিখেছে, ‘‌গ্রিন জোন জেলাগুলোতে ৫০ শতাংশের কম যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন চলবে। বাড়ি থেকেই কাজ করার চেষ্টা করুন। মাস্ক পরতে ভুলবেন না এবং বাইরে বেরলে সামাজিক দূরত্ব বিধি পালন করুন। পুলিশ লকডাউন বিধি কড়াভাবে বলবত্‍ রাখবে।’

একইসঙ্গে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, কন্টেনমেন্ট জোনগুলো বাদ দিয়ে ছোট গাড়ি চলাচল করতে পারে, তবে যাত্রী সংখ্যা তিনজনের বেশি করা যাবে না। শপিং মল ছাড়া সাধারণ দোকানপাট খোলা যাবে তবে সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনেই। শুধু লকডাউন বিধি ভাঙার জন্যই গত ২৫ মার্চ থেকে এপর্যন্ত ৪০,৭২৩জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং ৩৬১৪টা গাড়ি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে টুইটারে লিখেছে রাজ্য পুলিশ। ‌

আরও পড়ুন: সহকর্মীদের সুরক্ষায় জোড়াবাগান ট্রাফিক গার্ডকে কনটেনমেন্ট জোন ঘোষণা লালবাজারের

অন্যদিকে, শহরজুড়ে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ গনপরিবহণ। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই যে শহরজুড়ে বাস-মিনিবাসের ভিড় একলাফে বেড়ে যাবে, তা কিন্তু নয়। দীর্ঘদিন বসে যাওয়া বাস রাস্তায় নামাতে একাধিক সমস্যা সম্মুখীন হতে হবে বলে মত বাস মালিক ও শ্রমিক সংগঠনগুলির একাংশের। তাঁদের দাবি, বাসের টায়ার থেকে ব্যাটারি এমনকি একাধিক যন্ত্রাংশ দীর্ঘদিন ব্যবহার না হলে শুধু দাঁড়িয়ে থেকেই নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বাসচালকদের মতে, গাড়ির ব্যাটারি দীর্ঘদিন ব্যবহৃত না হলে তা বসে যাবেই। অন্যদিকে গাড়ির পিস্টন নিয়মিত গাড়ি না চললে তাও অকেজো হয়ে যায়। ফলে সবকিছু স্বাভাবিক হলেও বাসগুলি মেরামত করে চালাতে আরও কিছুটা সময় লাগবেই।

Related Articles

Back to top button
Close